ঢাকা-মস্কো রুটে সরাসরি ফ্লাইট চালু শিগগিরই

0
46

অনলাইন ডেস্ক:

যাত্রীবাহী ফ্লাইটের পাশাপাশি ঢাকা-মস্কো রুটে সরাসরি কার্গো ফ্লাইট চালু এখন সময়ের ব্যাপার মাত্র। দুই দেশের মধ্যে সরাসরি বিমান যোগাযোগ বাড়াতে এয়ার সার্ভিস চুক্তি (এএসএ) হালনাগাদ করা হয়েছে। সাপ্তাহিক ফ্লাইট ফ্রিকোয়েন্সি ৩ থেকে ১৪টিতে উন্নীত করা হয়েছে। যাত্রী পরিবহনের পাশাপাশি পণ্য পরিবহনের পরিসর বাড়াতে ঢাকার সঙ্গে ইতোমধ্যে চুক্তি করেছে মস্কো। ঢাকা ও মস্কোর মধ্যকার ১৯৭৩ সালের এয়ার সার্ভিস চুক্তিটি (এএসএ) হালনাগাদ করা হয়েছে। সম্প্রতি মস্কোতে দুই দেশের হালনাগাদ চুক্তিটি সই হয়।

বেসরকারি বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ-বেবিচক এর চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এহসানুল গনি চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল সম্প্রতি মস্কো সফর করে দেশে ফিরেছে। প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সমঝোতা স্মারকে সই করেন রাশিয়ার মিনিস্ট্রি অব ট্রান্সপোর্টেশন। শুক্রবার বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন বেবিচকের ফ্লাইট সেফটি অ্যান্ড রেগুলেশন্স’র পরিচালক উইং কমান্ডার চৌধুরী এম জিয়াউল কবির।

তিনি জানান, চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) সব রকম অনুমোদন ও সনদকে স্বীকৃতি দেবে রাশিয়া। নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে বেশ কয়েকটি প্রভাবশালী দেশ যখন বাংলাদেশ থেকে সরাসরি কার্গো পরিবহন বন্ধ করেছে, তখন রাশিয়ার আগ্রহেই এ চুক্তি হলো। এই চুক্তির কারণে বাংলাদেশ যাত্রীবাহী ফ্লাইট এর পাশাপাশি ঢাকা-মস্কো সরাসরি কার্গো ফ্লাইট চালু সুবিধা পাবে।

বেবিচক সূত্রে জানা গেছে, প্রথম অবস্থায় ঢাকা-মস্কো রুটে কার্গো ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করবে রাশিয়ার এয়ার ব্রিজ কার্গো এয়ারলাইনস (এবিসি)। পরবর্তীতে চালু হবে যাত্রীবাহী ফ্লাইট। যাত্রীবাহী বিমানের জন্য বর্তমান সমঝোতা স্মারকে ঢাকা-মস্কো সরাসরি অথবা তৃতীয় রাষ্ট্র ভারতের দিল্লি হয়ে ফ্লাইট পরিচালনার সুযোগ রাখা হয়েছে।

এ বিষয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের মুখপাত্র শাকিল মেরাজ বলেন, রাশিয়া দীর্ঘদিন ধরেই সরাসরি ফ্লাইট পরিচালনার আগ্রহ প্রকাশ করে আসছে। এটি হলে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সও লাভবান হবে এবং এভিয়েশন খাত সমৃদ্ধ হবে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ থেকে আকাশপথে সরাসরি পণ্য পরিবহনে রাশিয়া গত বছর আগ্রহের কথা জানায়। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এহসানুল গনি চৌধুরীকে লেখা এক চিঠিতে ঢাকায় রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেক্সজেন্ডার ইগনাতোভ এ আগ্রহের কথা জানান। চিঠিতে রাষ্ট্রদূত বলেন, রাশিয়ার এয়ারব্রিজ কার্গো এয়ারলাইনস এলএলসি (এবিসি) বাংলাদেশে সরাসরি কার্গো পরিবহনের আগ্রহ প্রকাশ করেছে। সংস্থাটি বোয়িং ৭৪৭ উড়োজাহাজে ঢাকা-মস্কো হয়ে সিঙ্গাপুর বা সাংহাই পর্যন্ত সপ্তাহে মোট তিনটি ফ্লাইট পরিচালনা করতে চায়।

এক সময় রুশ এয়ারলাইনস অ্যারোফ্লোট ঢাকা থেকে নিয়মিত যাত্রী বহন করত। সোভিয়েত ইউনিয়নের পতনের পর ওই ফ্লাইট চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়।

এস এম পলাশ