‘জল-সবুজে’ ঢাকা হবে ৩১ পার্ক

0
156

অনলাইন ডেস্ক :

২০১৭ সালের মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) ৩১টি পার্ক ও খেলার মাঠকে আন্তর্জাতিক মানের করে গড়ে তোলা হবে বলে জানিয়েছেন মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন। তিনি জানান, এসব পার্ক হবে জল-সবুজে ঢাকা।

সোমবার সকালে নগর ভবন সেমিনার হলে ঢাকা দক্ষিণের পার্ক ও খেলার মাঠ উন্নয়ন সম্পর্কিত এক প্রদর্শনী ও মতবিনিময় সভায় মেয়র একথা বলেন।

বর্তমানে জরাজীর্ণ পার্ক ও প্রায় ব্যবহার অনুপযোগী খেলার মাঠসমূহ আগামীতে উন্নয়নের মাধ্যমে কেমন হবে এ বিষয়ে স্থপতি রফিক আযমের নেতৃত্বে ‘জল সবুজে ঢাকা’ নামক একটি প্রেজেন্টেশন প্রদর্শন করেন স্থাপত্য প্রতিষ্ঠান সাতত্য অ্যান্ড জেপিজেড ও তাদের সহযোগী প্রতিষ্ঠানসমূহ।

আলোচনায় মেয়র বলেন, ঢাকাকে বাঁচিয়ে তোলার নতুন যাত্রা শুরু হয়েছে, এজন্য আমাদের মেধা, জ্ঞান, অভিজ্ঞতা ও সম্পদকে কাজে লাগাতে হবে।

তিনি বলেন, বিভিন্ন জরিপে প্রায়ই দেখা যায় ঢাকা বসবাসের অযোগ্য শহর। এখানে শিশুরা খেলবে মাঠ পায় না, খেলতে পারে না; ফলে তাদের শারীরিক ও মানষিক বিকাশ ঘটে না। এ অবস্থা থেকে আমরা বেরিয়ে আসবো ইনশাআল্লাহ।

মেয়র আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, ঢাকা বদলে যাচ্ছে। বদলে যাবে। প্রাকৃতিক অবস্থা যতদূর সম্ভব বজায় রেখে নতুনত্বের কাজ করতে হবে।

অনুষ্ঠানে স্থপতি মোবাশ্বের হোসেন বলেন, কিছু রাক্ষসরূপী অবৈধ দখলদার খেলার মাঠ, পার্ক গিলে খাওয়ার পায়তারা চালাচ্ছে। নানা ফন্দিফিকির করে দখল করার চেষ্টা চালাচ্ছে। এদের কবল থেকে পার্ক ও খেলার মাঠ মুক্ত রাখার জন্য এগুলো নতুন রূপে সাজাতে হবে।

বক্তারা তাদের আলোচনায় বলেন, পার্ক ও মাঠের স্থায়ী উন্নয়নের জন্য জনগণকে সম্পৃক্ত করতে হবে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সম্পৃক্ততা প্রয়োজন। পার্কসমূহ তালাবদ্ধ করে না রেখে উন্মুক্ত করে দিতে হবে। চারিদিক থেকে যাতে ভেতর পর্যন্ত দেখা যায় এমনভাবে তৈরি করতে হবে। এতে ভেতরে মাদক, হেরোইন সেবীসহ অপরাধ প্রবণতা কমে যাবে।

এসব পার্কে স্থায়ী দোকান তৈরি ও বরাদ্দ না দেয়ার জন্য কোনো কোনো বক্তা পরামর্শ দেন। বর্তমান মেয়রের এসব উদ্যোগ সফল হলে আগামী দশ বছরের মধ্যে ঢাকা বিশ্বের অন্যতম সুন্দর শহর হবে বলে মত ব্যক্ত করে নগর পরিকল্পনাবিদ ইকবাল হাবিব।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর এমকে বখতিয়ার প্রমুখ।

এস এম পলাশ