জনসংখ্যা জনসম্পদে রূপান্তরিত করতে না পারলে স্বপ্ন অধরাই থেকে যাবে

320
1348

বরুণ ব্যানার্জীঃ

আজ ১১ জুলাই বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস। জাতিসংঘের তথ্য অনুযায়ী ২০৫০ সালে এই ধরণীর জনসংখ্যার পরিমাণ হবে ৯৮০ কোটি। ইতোমধ্যেই পৃথিবীর জনসংখ্যা ৭০০ কোটি ছাড়িয়েছে। একটা বিশাল জনসংখ্যা নিয়ে এগিয়ে চলেছে আমাদের এই ধরণী। আর এই জনসংখ্যা ক্রমাগত হারে বেড়েই চলেছে। যদিও বিশ্বে এমন দেশও আছে যেখানে জন্মহার এবং মৃত্যুহার সমান। অর্থাৎ জিরো পপুলেশন কান্ট্রি। তবে এর সংখ্যা হাতেগোনা। অন্য দেশগুলোতে কমবেশি বিভিন্ন হারে জনসংখ্যা বেড়ে চলেছে। পৃথিবীর অন্যান্য মহাদেশের তুলনায় এশিয়া মহাদেশে জনসংখ্যার হার বেশি। পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত এবং চীনে বিশ্বের মোট জনসংখ্যার একটি বড় অংশের বসবাস।

বাংলাদেশও জনসংখ্যার অবস্থানগত দিক দিয়ে জনবহুল দেশের কাতারে অবস্থান করছে এবং ঘনবসতিপূর্ণ রাজধানী হিসেবে আমাদের তিলোত্তমা নগরী ঢাকার নাম কয়েকটি শহরের পরেই শোনা যায়। অনেক আগেই মেগাসিটিতে পরিণত হয়েছে ঢাকা। বহুদিন ধরেই এ বিষয়ে আলোচনা হচ্ছে। এই জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার যদি নিয়ন্ত্রণ করা না যায়, তবে উন্নয়ন কার্যক্রম কতটা ফলপ্রসূ হবে? তাই জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার কমিয়ে আনার পাশাপাশি জন্ম ও মৃত্যুহারে সঠিক ভারসাম্য বজায় রাখাটাই আজ জরুরি।

১,৪৭,৫৭০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের এই ছোট দেশটিতে এখন জনস্রোত। ঘনবসতিপূর্ণ দেশগুলোর কাতারে বাংলাদেশের অবস্থান। জনসংখ্যা কী হারে বাড়ছে, একটি তথ্য দিলে তা বোঝা যাবে। স্বাধীনতা লাভের পর ১৯৭৪ সালে দেশে প্রথম আদমশুমারি বা জনগণনা করা হয়। সে সময় এদেশে ৭.৬৪ কোটি মানুষ ছিল। এরপর ১৯৮১ সালে আদমশুমারি অনুষ্ঠিত হয়। তারপর থেকে প্রতি দশ বছর পর পর আদমশুমারি করা হয়ে থাকে। ২০০১ সালের আদমশুমারি থেকে দেখা যায়, এ দেশের জনসংখ্যা ১২.৯৩ কোটি। অর্থাৎ ১৯৭৪ থেকে ২০০১ পর্যন্ত ২৭ বছরে জনসংখ্যা বেড়েছে ৫.২৮ কোটি। এ সময় জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ছিল ১.৪৮ ভাগ। ২০০৭ সালের এক হিসাবে দেখা যায়, তখন জনসংখ্যার পরিমাণ ছিল ১৪ কোটি ৬ লাখ এবং বৃদ্ধির হার ১.৪১ ভাগ।

ক্রমবর্ধমান এই জনসংখ্যার বৃদ্ধির হার সুদূর অতীতে এত ছিল না। যেমন-১৮৬০ সালে বাংলাদেশ ভূখণ্ডে জনসংখ্যা ছিল মাত্র দুই কোটি। ১৯৪১ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৪.২০ কোটি। অর্থাৎ ৮০ বছরে জনসংখ্যা বেড়েছে মাত্র ২ কোটি। আবার ১৯৬১ সালে জনসংখ্যা ছিল ৫.৫২ কোটি এবং ১৯৯১ সালে তা বেড়ে দাঁড়ায় ১১.১৫ কোটিতে। এর মানে দাঁড়ায় এই ত্রিশ বছরেই বেড়েছে দ্বিগুণ। জনসংখ্যার বিচারে আমাদের দেশ অষ্টম স্থানে রয়েছে। কোথাও কোথাও অবশ্য নবমও উল্লেখ করা হয়েছে। তবে অষ্টম বা নবম যাই হোক স্থানের তুলনায় আমাদের জনসংখ্যা যে অনেক বেশি এই নিয়ে দ্বিমত করার কিছু নেই বলেই মনে হয়। প্রতিবছর এদেশের জনসংখ্যা বাড়ছে ২৫ লাখ করে (কোথাও কোথাও ২০ লাখ বলা হয়েছে।) এ অবস্থা চলতে থাকলে আগামী বিশ বা ত্রিশ বছরে আমাদের বিশাল জনগোষ্ঠী নিয়ে নানা প্রতিকূল অবস্থা মোকাবিলা করতে হবে, তাতে সন্দেহ নেই। কারণ জনসংখ্যা বৃদ্ধির সঙ্গে উন্নয়ন এবং জীবনমানের বিষয়টি অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িয়ে রয়েছে। অর্থাৎ জনসংখ্যা এবং উন্নয়ন সম্পর্কিত একটি বিষয়।

স্বাধীনতার পর এদেশের জনসংখ্যা ছিল সাড়ে সাত কোটি। তারপর থেকে বেড়ে চলা জনসংখ্যার জন্য, তাদের স্থান সংকুলান করার জন্য একের পর এক আবাস গড়ে উঠেছে। যার জন্য ব্যবহার করা হচ্ছে ফসলি জমি। যেখান থেকে আমাদের অন্নের ব্যবস্থা হয়। তার মানে হলো জনসংখ্যা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের জমির পরিমাণ কমতে শুরু করেছে। প্রতিবছরই এই জমির পরিমাণ কমছে। এর জন্য বনজঙ্গল কেটে সাফ করা হচ্ছে। উজাড় হচ্ছে বনভূমি। ভারসাম্য হারাচ্ছে প্রকৃতি। যার প্রভাব আমরা ইদানীং বেশ ভালোভাবেই টের পাচ্ছি। জনসংখ্যার চাপ সামলাতে না পেরে অপরিকল্পিতভাবে গড়ে উঠছে নগরী এবং বাসস্থান। ফলে ভূমিকম্পের ভয়ে আতঙ্কে থাকে নগরীর মানুষ। শুধু ফসলি জমিই নয়, বরং পুকুর, নদীনালা, খাল, বিল সব ভরাটের মাধ্যমে গড়ে উঠছে বহুতল ভবন। কারণ মাথাগোঁজার ঠাঁই দরকার। সেটা যেমন প্রয়োজন আমার আপনার, তেমনি অন্যেরও। ফলে বাধ্য হয়েই এসব জায়গায় মাথাগোঁজার ঠাঁই করে নিচ্ছে মানুষ।

জনসংখ্যা দেশের সম্পদ না বোঝা এ বিষয়টি দীর্ঘদিন ধরেই আলোচিত হয়ে আসছে। প্রতিটি মানুষই একেকটি সম্পদ। তার সামর্থ্য আছে এবং সে দেশের জন্য কিছু করতে পারে। প্রতিটি মানুষের মধ্যেই সেই স্পৃহা আছে। যা অনেক ক্ষেত্রেই প্রকাশ পায় না। প্রতিটি মানুষের নিজস্ব প্রতিভা থাকে, স্বীয় যোগ্যতা থাকে। দরকার শুধু প্রকাশ করার উপযুক্ত পরিবেশ এবং সহযোগিতা। কোনো মানুষই অবহেলার নয়। বরং তার সামর্থ্যকে কাজে লাগিয়ে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখার মতো পরিস্থিতি তৈরি করাই হচ্ছে রাষ্ট্রের কাজ। শিক্ষার আলো পারে অন্ধকার দূর করতে।

১৫-১৬ কোটি মানুষের এই দেশে ইতোমধ্যেই জনসংখ্যার অতিরিক্ত বৃদ্ধিজনিত কারণে নানা সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে বাল্যবিবাহ রোধ জরুরি। যদিও গ্রামাঞ্চলে এই বিষয়টি আশঙ্কাজনক হারেই বেড়ে চলেছে। মাঝে মাঝে পত্রপত্রিকায় এসব বিয়ে ঠেকানোর নানা খবর প্রকাশ হলেও আসলে এর বড় অংশটিই আড়ালে থেকে যায়। কারণ কুসংস্কার এবং অজ্ঞানতা থেকে বের করতে না পারলে স্বপ্ন অধরাই থেকে যাবে। তাছাড়া বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করতে না পারলে সমস্যা আরো ঘনীভূত হবে। আমাদের সম্পদ সীমিত। ফলে এই সীমিত সম্পদ নিয়েই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। যদি আমরা ভুলে না যাই, পৃথিবীর সেরা সম্পদের নাম মানুষ। তাহলে এই সম্পদকে ঠিকঠাকভাবে কাজে লাগাতে পারলেই সকল অসম্ভবকে সম্ভব করে তোলা যাবে। আর এ কাজে যারা সফল হয়েছে, তারাই আজ পৃথিবী শাসন করছে। কথাটা মনে রাখা আমাদের মতো দেশের জন্য খুবই জরুরি।

 

320 COMMENTS

  1. you are really a good webmaster. The site loading speed is incredible. It seems that you are doing any unique trick. Also, The contents are masterpiece. you ave done a wonderful job on this topic!

  2. Spot on with this write-up, I really assume this web site needs rather more consideration. I all most likely be once more to read much more, thanks for that info.

  3. Whats Taking place i am new to this, I stumbled upon this I have found It absolutely useful and it has helped me out loads. I am hoping to contribute & aid other customers like its aided me. Good job.

  4. Wow, incredible blog format! How long have you ever been blogging for? you make running a blog glance easy. The overall glance of your site is excellent, let alone the content material!

  5. Usually I don at read post on blogs, but I wish to say that this write-up very forced me to take a look at and do so! Your writing taste has been surprised me. Thank you, very great post.

  6. I will immediately grab your rss feed as I can not find your e-mail subscription link or e-newsletter service. Do you have any? Please let me know in order that I could subscribe. Thanks.

  7. Im no pro, but I feel you just made an excellent point. You definitely know what youre talking about, and I can seriously get behind that. Thanks for being so upfront and so sincere.

  8. Your style is very unique in comparison to other people I ave read stuff from. I appreciate you for posting when you have the opportunity, Guess I all just bookmark this web site.

  9. Wow, superb weblog format! How long have you ever been blogging for? you made running a blog look easy. The overall glance of your website is great, let alone the content!

  10. Magnificent beat ! I would like to apprentice even as you amend your site, how could i subscribe for a blog site? The account aided me a acceptable deal. I were a little bit acquainted of this your broadcast offered shiny transparent idea|

  11. You have noted very interesting details ! ps decent web site. O human race born to fly upward, wherefore at a little wind dost thou fall. by Dante Alighieri.

  12. We stumbled over here coming from a different web address and thought I may as well check things out. I like what I see so i am just following you. Look forward to looking at your web page repeatedly.

  13. Wow, superb blog layout! How long have you been blogging for? you made blogging look easy. The overall look of your site is magnificent, let alone the content!. Thanks For Your article about sex.

  14. IaаАа’б‚Т€ТšаЂаŒаАа’б‚Т€ТžаБТžm a long time watcher and I just believed IaаАа’б‚Т€ТšаЂаŒаАа’б‚Т€ТžаБТžd drop by and say hello there for the incredibly initially time.

  15. I seriously love your website.. Pleasant colors & theme. Did you make this website yourself? Please reply back as I’m attempting to create my own personal blog and want to learn where you got this from or what the theme is named. Many thanks!|

  16. We’re a bunch of volunteers and starting a new scheme in our community. Your website provided us with helpful information to work on. You’ve performed a formidable process and our entire group will probably be thankful to you.|

  17. Hello there, just became aware of your blog through Google, and found that it’s truly informative. I’m gonna watch out for brussels. I will be grateful if you continue this in future. Many people will be benefited from your writing. Cheers!|

  18. Having read this I believed it was extremely informative. I appreciate you spending some time and effort to put this article together. I once again find myself personally spending a lot of time both reading and leaving comments. But so what, it was still worthwhile!|

  19. I’m really impressed along with your writing skills and also with the layout in your weblog. Is that this a paid topic or did you modify it your self? Either way stay up the excellent high quality writing, it’s rare to see a nice weblog like this one these days..|

  20. You could definitely see your skills within the work you write. The world hopes for more passionate writers like you who are not afraid to say how they believe. At all times go after your heart.

  21. I blog frequently and I truly thank you for your content. Your article has truly peaked my interest. I am going to take a note of your site and keep checking for new details about once per week. I opted in for your Feed as well.|

LEAVE A REPLY