ছেলে সন্তান না হওয়ায় গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ

0
136

অনলাইন ডেস্ক:

পরপর ছয় কন্যা সন্তানের জন্ম দেয়ায় যশোরের মণিরামপুর উপজেলার রঘুনাথপুর গ্রামে শাহিদা খাতুন নামে এক গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। বুধবার রাতে পুলিশ ওই গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার করেছে।
শাহিদা রঘুনাথপুর গ্রামের আতিয়ার রহমানের স্ত্রী।ঘটনার পর স্বামীসহ পরিবারের লোকজন গা ঢাকা দিয়েছে।
নিহত শাহিদার বোন জরিনা খাতুন অভিযোগ করেন, বিয়ের পর তার বোনের সংসারে ছয় মেয়ে সন্তান জন্ম নেয়। ছেলে সন্তান না হওয়ায় কারণে-অকারণে প্রায়ই স্বামী আতিয়ার তার বোনকে মারধর করতো। এরই ধারাবাহিকতায় বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে বাড়িতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে প্রথমে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে শ্বাসরোধে হত্যার পর ঘরের মধ্যে শাহিদার লাশ রেখে আতিয়ার পালিয়ে যায়। পরে তার পরিবার থেকে এলাকায় প্রচার করা হয় শাহিদা গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে।

খেদাপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই ইকবাল হোসেন জানান, আত্মহত্যার কথা বলা হলেও মরদেহ তারা মেঝেতে পেয়েছেন। আর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মারা গেলেও পুলিশকে খবর দেয়া হয়েছে সন্ধ্যার দিকে। ঘটনার পর নিহতের স্বামীসহ পরিবারের লোকজনও গা ঢাকা দিয়েছে। রাতে লাশ উদ্ধারের পর সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ময়নাতদন্তের জন্য লাশ যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হবে।