ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাফিজ আবারও বেপরোয়া

124
1855

শ্যামনগর প্রতিনিধি:

নানা অপকর্মে লিপ্ত শ্যামনগর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাফিজ সরদার আবারও বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। প্রকাশ্যে ইয়াবা সেবনের ছবি ফেসবুকে প্রচার হওয়ার পরে সাবেক এই ছাত্রলীগ সভাপতির ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। পরের দিন বিভিন্ন পত্রপত্রিকায় হাফিজের ছবি প্রকাশ হওয়ার পর সাতক্ষীরা জেলা ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দের টনক নড়ে এবং তার বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহন করে এবং ছাত্রলীগ থেকে আজীবন বহিষ্কার করে। পথ হারনো হাফিজ এখন ভিন্ন পেশায় নেমেছে। শ্যামনগর থানায় তিন দারোগা সোর্স হয়ে বিভিন্ন লোকজনকে জিম্মি করে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। বুধবার বিকাল ৪টায় শ্যামনগর উপজেলা প্রেসক্লাব চত্তর থেকে এক নিরীহ সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করে শ্যামনগর থানা পুলিশ। সাংবাদিক তার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ জানতে চাইলে থানা পুলিশ বলেন যে তার নামে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা আছে এবং তাকে মটর সাইকেলে নিয়ে যাওয়ার সময় সাংবাদিক তার পরিচয় ও পিতার নাম জানায় এবং তার সাংবাদিকের পরিচয়পত্র দেখালে কিছু সময় বাক বিতন্ডার পরে থানা পুলিশ তাকে ছেড়ে দেয়। পরবর্তীতে শ্যামনগর থানায় গিয়ে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও পুলিশ অফিসারদের কাছে জানতে চাইলে তারা বলেন- তাদের নেওয়া তথ্যে  ভুল ছিল। এবং তথ্য কে দিয়েছে জানতে চাইলে শ্যামনগর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি হাফিজের নাম বলেন। এসময় হাফিজ থানার সামনে দাড়িয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন কটু কথা বলতে থাকে। এবিষয়ে সাতক্ষীরা-৪ আসনের সাংসদ এসএম জগলুল হায়দারের সাথে কথা বললে তিনি বলেন- হাফিজ আমার দলের কেউ না। বরং ছাত্রলীগের বিভিন্ন কর্মসূচীতে বাধা প্রদান করছে। এবিষয়ে শ্যামনগর সদরের শতশত মানুষ এরূপ কর্মকান্ডের প্রতিবাদ জানিয়েছে।

 গাজী আল ইমরানঃ

124 COMMENTS