চেয়ারম্যান রতনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য হেলিকপ্টার যোগে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে

0
679
নিজস্ব প্রতিনিধি:
দূবৃত্তের ছোড়া ছুলিতে গুরতর আহত সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সখিপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ফারুক হোসেন রতনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতাল থেকে রিফাড করে ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। বেলা সাড়ে ১২টার সময় সদর হাসপাতাল থেকে এ্যামবুলেন্সে করে সাতক্ষীরা স্টেডিয়াম মাঠে নিয়ে সেখান থেকে হেলিকপ্টার যোগে তাকে ঢাকা স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

আওয়ামী লীগ নেতা সখিপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ফারুক হোসেন রতন গতকাল মঙ্গলবার রাত পৌনে ৯টার দিকে সখিপুর বাজার থেকে মটর সাইকলে বাড়ি ফেরার পথে সখিপুর স্কুল মোড়ে পৌছালে দূবৃত্তরা তাকে লক্ষ করে পর পর তিন রাউন্ড গুলি বর্ষন করে। এসময় তার বুকে এক রাউন্ড গুলি লাগলে সে মাটিতে লুটিয়ে পরে। ওই রাতেই  গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। আহত সখিপুর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ফারুক হোসেন রতন সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার তিলকুড়া গ্রামের শেখ আমজাদ হোসেন আমু।
ঘটনার পরপরি তাকে দেখতে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ছুটে জান পুলিশ সুপার সাজাদ্দুর রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুনছুর আহমেদ,সাধারন সম্পাদক জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, যুগ্ন সম্পাদক অধ্যপক আবু আহমেদ, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শাহদাৎ হোসেন সহ আওয়ামীলীগ,যুবলীগ,ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ।

সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ সাকিব রায়হান জানান ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন রতনকে গতকাল রাত সাড়ে নয়টার দিকে জরুরী ভিত্তিতে অপারেশন করা হয়। তিনি এখন শঙ্কা মুক্ত। তার উন্নত চিকিৎসার জন্য দুপুরে বাই ইয়ার এ্যম্বুলেন্সে করে ঢাকা স্কায়ার হাসপাতালে রিফাড করা হয়েছে।

উল্লেখ্য ২০১৩ সালে সাতক্ষীরায় জামায়াত-শিবিরের সহিংসতা চলাকালিন সময় প্রকাশ্যে দিনের বেলায় দেবহাটা উপজেলার সখিপুরে তাকে জামায়াত শিবিরের ক্যাডাররা হামলা চালিয়ে মৃত্যু ভেবে ফেলে রেখে যায়। দীর্ঘ ২ বছর চিকিৎসাধীন থাকার পর শেখ ফারুক হোসেন রতন সুস্থ্য হয়ে উঠেন। #