চামড়া পাচার প্রতিরোধে সাতক্ষীরা সীমান্তে আইনশৃখংলা বাহিনীর কঠোর নজরদারী

0
117

আসাদুজ্জামান:

চামড়া পাচার প্রতিরোধে সাতক্ষীরার ২৩৮ কিলোমিটার সীমান্ত জুড়ে বিজিবি ও পুলিশসহ আইনশৃখংলা বাহিনীর নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। ঈদুল আযহার পরে কোন চোরাকারবারী যাতে সাতক্ষীরা সীমান্ত দিয়ে ভারতে কোন পশুর চামড়া পাচার করতে না পারে সে জন্য সীমান্তে এই কঠোর নজরদারী করা হয়েছে। পাশাপাশি সীমান্ত জুড়ে রয়েছে গোয়েন্দা নজরদারী। ট্যানারী মালিকদের নির্ধারন করা মূল্যে পশুর চামড়া বিক্রি করতে না পেরে কোন চোরাচালানী যাতে প্রতিবেশী দেশ ভারতে চামড়া পাচার করতে না পারে সে জন্য এই টহল জোরদার করা হয়েছে। কোরবানির পর চোরাকারবারীরা অসৎ উদ্দেশ্যে প্রচুর পরিমাণ পশুর চামড়া অবৈধভাবে পার্শ্ববর্তী দেশসমূহে পাচার করে থাকে। এ জন্য চামড়া পাচার রোধে বিজিবির পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ন স্থানে পুলিশ চেকপোস্ট বসানোসহ গোয়েন্দা নজরদারী বৃদ্ধি করেছেন পুলিশ প্রশাসন। তবে, চামড়া ব্যবসায়ীদের অভিযোগ ট্যানারীর মালিক ও সরকারের নির্ধারন করা মুল্যে তাদের চামড়া কিনতে হচ্ছে যার কারনে লাভের পরিমানটা তাদের কম হবে।সাতক্ষীরা ৩৮ বিজিবি’র ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মেজর মোঃ আমিনুর রহমান জানান, সাতক্ষীরায় সীমান্ত দিয়ে যাতে কোন চোরাচালানী ভারতে চামড়াসহ কোন ধরনের চোরাচালানী পন্য পাচার না করতে পারে সেজন্য সমগ্র সীমান্ত এলাকাজুড়ে বিজিবি বিশেষ সতর্কাবস্থাসহ গোয়েন্দা নজরদারীতে রয়েছে। তিনি আরো জানান, সীমান্ত দিয়ে যে কোনো ধরনের পাচার ও জঙ্গি-সন্ত্রাস প্রতিরোধে বিজিবি সর্বদা প্রস্তুত রয়েছে।সাতক্ষীরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মেরিনা আক্তার জানান, সাতক্ষীরা একটি সীমান্তবর্তী জেলা। এখান থেকে যাতে কোন চোরাচালানী চামড়া পাচার না করতে পারে সেজন্য বিজিবির পাশাপাশি পুলিশের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, আগামী ৭ দিন যাবত এই নিরাপত্তা জোরদার থাকবে।