কেশবপুরে জলাবদ্ধতা নিরসনে দু’টি খাল খননের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

0
45

কেশবপুর অফিস:
যশোরের কেশবপুরের বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নের জলাবদ্ধতা নিরসনে বারমাসিয়া খাল খনন ও ত্রিমোহিনী ইউনিয়নের জলাবদ্ধতা নিরসনে বোয়ালের বিলের খাল খননের দাবীতে স্থানীয় প্রাথমিক শিক্ষক মিলনায়তনে বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলন সিসিডিবির সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নবাসির পক্ষে ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বাক্য পাঠকালে বলেন, উপজেলার বিদ্যানন্দকাটি ইউনিয়নের বারমাসিয়া খালটি পলি পড়ে ভরাট হয়ে গেছে। তাছাড়া ঘের মালিকরা খালটি জবরদখল করে আছে। যার ফলে বর্ষা মৌসুমে ওই খালটি দিয়ে পানি নিষ্কাশিত না হওয়ায় খাল সংলগ্ন হাড়িয়াঘোপ, পরচক্রা, ভাবনীপুর, বাউশলা, হিজালডাঙ্গা-সহ ৭/৮ টি গ্রামে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে শত শত বাড়ি-ঘর পানিতে তলিয়ে যায়। তাছাড়া বারমাসিয়া খাল পাড়ের বিলগুলিতে ফসল না হওয়ায় হাজার হাজার মানুষ চরম দূর্ভোগের মধ্যদিয়ে জীবন-যাপন করেন। যে কারণে জলাবদ্ধতা নিরসনে জরুরী ভিত্তিতে ওই খালটি খননের প্রয়োজন। অপরদিকে উপজেলার ত্রিমোহিনী ইউনিয়ন বাসির পক্ষে ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমান সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বাক্য পাঠকালে বলেন, ত্রিমোহিনী ইউনিয়নের মধ্যদিয়ে প্রবাহিত বোয়ালের বিলের খালটি দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় পলি পড়ে ভরাট হয়ে গেছে। যার ফলে বিলপাড়ের বরণডালি, শাহাপুর, সরসকাটি-সহ ৫/৬টি গ্রামে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়ে শত শত বাড়ি-ঘর পানিতে তলিয়ে যায়। তাছাড়া বোয়ালের বিল পাড়ের বিলগুলিতে ফসল না হওয়ায় হাজার হাজার মানুষ চরম দূর্ভোগের মধ্যদিয়ে জীবন-যাপন করেন। যে কারণে জলাবদ্ধতা নিরসনে জরুরী ভিত্তিতে বোয়ালের বিলের খাল খননের প্রয়োজন।  সংবাদ সম্মেলনে বিদ্যানন্দকাটি ও ত্রিমোহিনী ইউপি সদস্য ও ভুক্তোভোগি জনসাধারণ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিদ্যানন্দকাটি ইউপি চেয়ারম্যান আমজাদ হোসেন, সিসিডিবির প্রোগ্রাম ম্যানেজার হারুন-অর-রশিদ, টেকনিক্যাল অফিসার কৃষিবিদ পার্থ প্রতীম সেন, মহসিন হোসেন রনি, ইউপি সদস্য জিয়াউর রহমান, জামসেদ আলী আনু প্রমুখ। সংবাদ সম্মেলন শেষে খাল দুটি খননের দাবীতে কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এস এম সাইফুর রহমানের নিকট স্মরিকলিপি প্রদান করা হয়।

এস আর সাঈদ

LEAVE A REPLY