কেশবপুরের ত্রিমোহিনী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনিস ইয়াবাসহ আটক

0
91

কেশবপুর প্রতিনিধি: কেশবপুরের ত্রিমোহিনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিছুর রহমানকে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ পুলিশ আটক করেছে। তার বিরুদ্ধে ইয়াবার কারবার ছাড়াও মাদক সেবন, আওয়ামী লীগ নেতাকর্মী ও সরকারি কর্মকর্তার ওপর নির্যাতন চালানোসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। সোমবার রাতে কেশবপুর থানায় তার বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা প্রদান ও মাদক দ্রব্য আইনে পৃথক ২টি মামলা হয়েছে।
পুলিশ জানায়, যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) একটি টিম সোমবার সন্ধ্যায় কেশবপুর-ত্রিমোহিনী সড়ক এলাকা থেকে ১০০ পিস ইয়াবাসহ ত্রিমোহিনী ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমানকে গ্রেফতার করে যশোর নিয়ে যায়। তিনি দীর্ঘদিন ধরে মাদক সেবন ও ব্যবসা করে আসছিলেন। গত ইউপি নির্বাচনে বিভিন্ন কলাকৌশলে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়ে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের ওপর মারপিটসহ বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করেন।
গত বছরের ৭ অক্টোবর জমিজমা সংক্রান্ত সালিশের নামে চেয়ারম্যান আনিস শাহাপুর গ্রামের আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুস সোবহান গাজীকে ত্রিমোহিনী বাজারে কাঠের চলা দিয়ে পিটিয়ে পঙ্গু করে দেয়। ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ৩ মাস চিকিৎসার পর সম্প্রতি সোবহান গাজী বাড়ি ফিরেছেন। চেয়ারম্যানের বাড়ি এলাকায় সরকারি খাস জমিতে প্রাচীর তৈরিতে বাঁধা দেওয়ায় চেয়ারম্যান আনিস ভূমি অফিসে ঢুকে সাতবাড়িয়া ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বিষ্ণুপদ মল্লিকের মুখ চেপে ধরে বাম কানের ভেতর মোটর সাইকেলের চাবি ঢুকিয়ে র্নিযাতন চালায় ও বেদম মারপিট করে। তিনি বর্তমান খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। আহত ওই কর্মকর্তার বাড়ি মনিরামপুর উপজেলার পদ্মনাথপুর গ্রামে।
কেশবপুর থানার ওসি (তদন্ত) শেখ মাসুদুর রহমান বলেন, ত্রিমোহিনী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আনিছুর রহমানের বিরুদ্ধে ভূমি সহকারী কর্মকর্তা বিষ্ণুপদ মল্লিক বাদি হয়ে সরকারি কাজে বাধা প্রদানের একটি (নং ৭) এবং যশোর ডিবি পুলিশ মাদক দ্রব্য আইনে একটি (নং ৮) মামলা করেছেন। তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

এস আর সাঈদ /পলাশ