কৃষিজমির করপোরেটায়ন বন্ধ হোক

20
257

বরুণ ব্যানার্জী :

২০১৫ সালে কৃষিজমি সুরক্ষার প্রশ্নে রাষ্ট্র তৈরি করেছে ‘কৃষিজমি সুরক্ষা ও ভূমি ব্যবহার আইন’। কৃষিজমি সুরক্ষা ও ভূমি ব্যবহার আইনে ‘কৃষিজমিকে’ কেবল খাদ্যশস্য উৎপাদনের স্থান হিসেবে দেখা হয়েছে। আইনের প্রেক্ষাপট বা ভূমিকা অংশে কৃষিজমি সুরক্ষার উদ্দেশ্য হিসেবে বলা হয়েছে ‘পরিবেশ ও খাদ্যশস্য উৎপাদন অব্যাহত রাখার কথা’। কৃষিজমি কোনোভাবেই কেবল খাদ্যশস্য উৎপাদনের জায়গা নয়। এটি এক বিশেষ বৈশিষ্ট্যময় বাস্তুসংস্থান এবং এখানে নানা প্রাণি ও উদ্ভিদের যৌথ বসবাসের ভেতর দিয়ে এক জটিল প্রতিবেশ ব্যবস্থা চালু থাকে। কৃষিজমি জীবন্ত, এর প্রাণ আছে। এটি নানা অণুজীব, পতঙ্গ, কেঁচো, কাঁকড়া, শামুক, সাপ, ছোট পাখি, শ্যাওলা ও গুল্ম জাতীয় উদ্ভিদের আবাস ও বিচরণস্থল। কৃষিজমি একইসঙ্গে কোনো গ্রামীণ সমাজের বসতিস্থাপনের ইতিহাস এবং কৃষিসভ্যতার এক জীবন্ত দলিল।এক এক অঞ্চলের কৃষিজমি এক এক ঋতু মৌসুমে একেক রঙ ও ব্যঞ্জনা নিয়ে মূর্ত হয়। কখনোবা ধানের সবুজ প্রান্তর, কখনো হলুদ সরিষার ক্ষেত, কখনো জুমের মিশ্র ফসল আবার কখনোবা রসুনের জমি। কৃষিজমি জলবায়ু সুরক্ষায় ভূমিকা রাখে এবং পৃথিবীর যেকোনো প্রান্তের কৃষিজমিই দুনিয়ার সামগ্রিক টেকসই বিকাশে অবদান রাখে। ভৌগলিকভাবে কৃষিজমি স্থানীয়, কিন্তু এর সামগ্রিক অবদান বৈশ্বিক। খাদ্যশস্য উৎপাদনের মাধ্যমে কৃষিজমি মানুষসহ অনেক প্রাণের অনেক খাদ্যের জোগান দেয় সত্য। কিন্তু কৃষিজমির সামাজিক, সাংষ্কৃতিক, অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক গুরুত্ব অপরিসীম। এটি কৃষিসভ্যতা বিকাশের ভিত্তিস্থল। এখনে আরো যুক্ত করা জরুরি যেমন, খনিপ্রকল্প, ইটভাটা, বিদ্যুৎপ্রকল্প, আন্তঃরাষ্ট্রিক উন্নয়ন আঘাত, বৃহৎ বাঁধ, বৃহৎ অবকাঠামো, বড় সেতু, রেলপথ, বিমানবন্দর, সেনানিবাস সম্প্রসারণ ইত্যাদি। দেশজুড়ে ছড়িয়ে থাকা কৃষিজমিগুলো আজ মূলত বহুজাতিক করপোরেট আগ্রাসনের হাতে বন্দি। প্রশ্নহীনভাবে এখানে কৃষিজমির করপোরেটায়ন ঘটছে। আন্তরাষ্ট্রীয় নানা সমস্যাও বাংলাদেশের কৃষিজমি বিনষ্ট করছে। বিরোধপূর্ণ ভূমি বা সীমানা চিহ্নিকরণে সমস্যা কিংবা প্রতিবেশী রাষ্ট্রের উজানে অপরিকল্পিত খনন, বৃহৎ বাঁধ বা প্রকল্প যা বাংলাদেশের কৃষিজমির জন্য তৈরি করছে নানা সংকট। কৃষিজমি সুরক্ষা আইনে আন্তঃরাষ্ট্রিক এ সংকটের প্রসঙ্গটি একেবারেই অনুপস্থিত। অথচ এই সমস্যার কারণে বাংলাদেশ প্রতিদিন হারাচ্ছে বিশাল কৃষিভূমি এবং কৃষিজীবন থেকে উদ্বাস্তু হচ্ছে মানুষ। শিল্পায়ন, বাণিজ্যিক খামার, বহুজাতিক খনন বা আন্তঃরাষ্ট্রিক উন্নয়ন সবকিছুই আজ নিয়ন্ত্রণ করছে দুনিয়ার দশাসই সব বহুজাতিক কোম্পানি। তারা গোটা দুনিয়ার প্রাণ ও প্রকৃতিকে করপোরেট দখলে আনার উন্মত্ত যুদ্ধে নেমেছে। এই অন্যায় যুদ্ধ থামানো জরুরি। কৃষিজমির করপোরেটায়ন বন্ধে কৃষিজমি সুরক্ষা আইনে স্পষ্ট বিধান রেখে একে কার্যকর করতে হবে। কারণ কৃষিজমি আমাদের ভূগোল ও সভ্যতার ইতিহাস নির্মাতা, করপোরেট কোম্পানির মুনাফার পুতুল নয়।

20 COMMENTS

  1. hey there and thank you for your information – I’ve certainly picked up something new from right here.
    I did however expertise a few technical points using this
    web site, since I experienced to reload the site a lot of
    times previous to I could get it to load correctly.
    I had been wondering if your web hosting is OK? Not that I’m complaining, but slow loading instances times
    will often affect your placement in google and can damage your quality score if advertising
    and marketing with Adwords. Well I’m adding this RSS to my email and can look out for a lot more of your respective intriguing content.
    Make sure you update this again soon.

  2. My programmer is trying to persuade me to move to .net from PHP.
    I have always disliked the idea because of the expenses. But
    he’s tryiong none the less. I’ve been using Movable-type on a number of websites for about a year and am anxious about switching to another platform.

    I have heard good things about blogengine.net. Is there a way I can transfer all my wordpress posts
    into it? Any help would be really appreciated!