কালিগঞ্জের সন্ন্যাসীর চকে ব্রীজ ভেঙে নিহত-২

0
1474

নলতা প্রতিনিধি: নিম্নমানের নির্মাণ স্মামগ্রী ব্যবহার করে সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা ইউনিয়নের সন্ন্যাসীর চক হাটখোলার পাশে হাওড়া খালের উপর নির্মিতব্য আরসিসি ঢালাই কালভার্টটি ভেঙে পড়েছে। সোমবার দুপুর ২ টার দিকে এ ঘটনা ঘটার সময় দু’জন নির্মাণ শ্রমিক আহত হয়েছে। আহতদের গোপনে বেসরকারি ক্লিনিকে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার অফিস সূত্রে জানা গেছে, ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রনালয়ের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি ২০১৬-২০১৭ অর্থবছরে কালিগঞ্জ উপজেলায় ‘গ্রামীন রাস্তায় ছোট ছোট সেতু নির্মাণ/কালভার্ট  প্রকল্পের’ আওতায় নলতা  ইউনিয়নের সন্নাসীর চক হাটখোলার পাশে আমজাদের বাড়ির পাশে হাওড়া খালের উপর ৬০ ফুট দৈর্ঘের আরসিসি ঢালাই কালভার্ট নির্মাণের জন্য গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর দরপত্র আহবান করা হয়।  চার নং প্রুপের আওতায় ৫৬ লাখ ৮৯ হাজার ১০৬ টাকা ব্যয়ে ওই কাজ বাস্তবায়নের জন্য চলতি বছরের ২ ফেব্রুয়ারি কার্যাদেশ পান ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান তালার ‘প্রগতি কনস্ট্রাকশান’ শহীদুল হক। ওই কাজ দেখাশুনার দায়িত্বে ছিলেন কাজী শহীদুল হক রাজু। আগামি ৩০ জুনের মধ্যে ওই কাজ শেষ করতে বলা হয়। সে অনুযায়ি ঠিকাদার শহীদুল হক চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে থেকে সন্ন্যাসীর চক হাটবাজারের আমজাদের বাড়ির পাশে হাওড়া খালের উপর আড়াআড়িভাবে বাঁধ দেওয়ার কাজ শুরু করেন কাজী শহীদুল হক রাজু ও নলতা ইউপি’র ৯নং ওয়ার্ডের সদস্য আব্দুল মজিদ। সরেজমিনে গেলে এ প্রতিবেদককে নলতা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুর রহিম, সন্ন্যাসীর চক গ্রামের আব্দুর রশীদসহ কয়েকজন জানান, হাওড়া খালে আড়াআড়ি বাঁধ দিয়ে পানি সেচ দিয়ে ফেলার পর আরসিসি ঢালাই শুরু করলে নির্মাণ সামগ্রীর গুণগত মান নিয়ে তারা প্রশ্ন তোলেন। বিষয়টি কয়েকবার কালিগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহারিয়ার মাহমুদ রঞ্জুকে অবহিত করলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান। এমনকি বেশি বুঝতে গেলে কালভার্ট অন্যত্র সরিয়ে নেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। একপর্যায়ে গত সোমবার দুপুর ২ টার দিকে কালভাটের উপর দেওয়া ঢালাই ধ্বসে পড়ে মাসুদ ও শাহীন নামের দু’ শ্রমিক জখম হয়। বিষয়টি ধামা জাপা দিতে মারাত্মক জখম দু’ শ্রমিককে সাতক্ষীরার একটি বেসরকারি ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয়। তারা অভিযোগ করে বলেন, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহারিয়ার মাহমুদ রঞ্জু ও  ঠিকাদার শহীদুল ইসলামের গোপন পরিকল্পনায় হাওড়া খালের উপর এ ধরণের জনস্বার্থ বিরোধী নিম্নমানের আরসিসি ঢালাই ব্রীজ তৈরির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এতে পরিকল্পনাকারিরা মোটা অংকের টাকা মুনাফা লুটে নেবে। এ ব্যাপারে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান তালা’র প্রগতি কনস্ট্রাকশানের স্বতাধিকারী শহীদুল ইসলামের সঙ্গে তার ০১৭১১-৮২৯৪৬৫ নম্বওে বার বার মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে কাজ তদারকীর দায়িত্বে থাকা কাজী শহীদুল হক রাজু ও ইউপি সদস্য আব্দুল মজিদ  জানান, নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী নয়, স্যানিটারিং এর সময় একটি বাঁশ থেকে অপর বাঁশের দূরত্ব বেশি থাকায় ছাদ ধ্বসে পড়েছে। কালিগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শাহারিয়ার মাহমুদ রঞ্জু’র সঙ্গে শুক্রবার রাত ৮টা ২০ মিনিটে তার ০১৭১১-৯৯১৬৮৪নং মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে সেটি বন্ধ পাওয়া যায়।

তরিকুল ইসলাম লাভলু/মুন/রহ