কালিগজ্ঞের রবিউল এখন অনেকটা সুস্থ!

0
56

স্টাফ রিপোটার : সাতক্ষীরার কালিগজ্ঞ উপজেলার বালাকাটি গ্রামের সেই রবিউল এখন অনেকটা সুস্থ। দিন মুজুর শোকর আলী গাজীর ছেলে দিনমজুর রবিউল ইসলাম(৩০) পেটের তাগিদে শ্রমিক হিসেবে বিদ্যুতের কাজে যায়। ২০১৬ সালের ১০ সেপ্টেম্বর বিকেলে বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে রবিউলের ঝলসে যায় পুরো শরীরের ৭০ শতাংশ। কালিগজ্ঞ, সাতক্ষীরা, খুলনা হাসপাতাল থেকে রবিউলকে নেওয়া হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে। এরই মধ্যে পরিবারের গচ্ছিত সব টাকা খরচ করে ফেলে রবিউলের বাবা। রবিউলের মা রোকেয়া বেগম ও বাবা শোকর আলী গাজী ছেলের চিকিৎসার জন্য পথে পথে ঘুরতে থাকে।  অসহায়ত্ব এই পরিবারের ঘটনাটি জাগো নিউজের দৃষ্টিতে আসার পর “টাকার অভাবে ওষধ কিনতে পারছে না রবিউলের পরিবার” শিরোনামে ২৭ অক্টোবর সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি প্রকাশ হওয়ার পর জেলা প্রশাসক আবুল কাশেম মোঃ মহিউদ্দীন রবিউলের চিকিৎসার জন্য ১৫ হাজার টাকার চেক প্রদান করেন। সেই টাকায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মাথায় অপারেশন হয় রবিউলের। জেলা পরিষদের পক্ষ থেকে ১০ হাজার টাকা সহায়তা করা হয়। তাছাড়া দৈনিক সাতক্ষীরায় সংবাদ দেখে বিভিন্ন হৃদয়বান মানুষ রবিউলের বাবার বিকাশ নাম্বারে সহায়তা পাঠান। সেই টাকায় টানা ৬৭ দিন চিকিৎসা শেষে রবিউল তার মায়ের কোলে ফিরে আসে।  রবিউল এখনো সম্পূর্ণরুপে সুস্থ হয়নি তবে ডাক্তাররা বলেছেন ধীরে, ধীরে সম্পূর্ণরুপে সুস্থ হয়ে যাবে রবিউল।  সেই সময়ে রবিউলের চিকিৎসার জন্য সহায়তা চেয়ে আবেদন করা হয়েছিল জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে। রোববার দুপুরে ৮ হাজার টাকার চেক রবিউলের পরিবারের কাছে তুলে দেন জেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের প্রধান সহকারি জিয়াউর রহমান ও অফিস সহকারি মিজানুর রহমান। রবিউলের মা রোকেয়া বেগম সহায়তা পাওয়ার পর বলেন, রবিউল এখন ভালো আছে। একটু হাঁটতে পারে। আপনাদের কাছে আমরা চির ঋণী। রবিউলের বাবা শোকর আলী গাজী কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

মুন/রহ

LEAVE A REPLY