কাদাকাটিতে প্রাথমিক স্কুলে ক্লাশ রুম তৈরিতে বাঁধা – আকাশের নিচে চলছে পাঠদান

0
121

আশাশুনি প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার কাদাকাটি ইউনিয়নের ১০০ নং কাদাকাটি হিন্দুপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্লাশ রুম তৈরিতে বাঁধা সৃষ্টির অভিযোগ পাওয়া গেছে। সরোজমিনে গিয়ে জানাগেছে, ৫০ শতক জায়গা নিয়ে ১৯৪৫ সালে বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠিত হয়। কিন্তু বিদ্যালয়ের একটি ভবন ছিল, ভবনটি ২০১২ সালে পরিত্যক্ত হয় । স্কুলের ম্যানেজিং কমিটি, শিক্ষক ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে পরিত্যক্ত ভবনের পাশে টিনের ছাউনি ও বাঁশের বেড়া দিয়ে বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের পাঠ দানের ব্যবস্থা করা হয় এবং বর্তমানে ১ম ও ৪ র্থ শ্রেণির ক্লাশ মাঠে বেঞ্চ দিয়ে নেওয়া হচ্ছে ও ৫ম শ্রেণির ক্লাশ পার্শ্ববর্তী মন্দিরে নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু টিনের ছাউনির রুমগুলো কয়েকদিন আগে ইট দিয়ে পুনঃ সংস্কার করতে গেলে পার্শ্ববর্তী ওয়াদুদ সরদারের ছেলে নজরুল সরদার ও ইসরাফিল ইসলাম বাবু প্রতিষ্ঠান তৈরিতে বাঁধার সৃষ্টি করে এবং ম্যানেজিং কমিটির সকল সদস্য ও শিক্ষকদের হুমকি দিতে থাকে। ম্যানেজিং কমিটির সহ-সভাপতি মৃত সালাম সরদারের ছেলে আমিনুর রহমান ও ইউনুছ সরদারের ছেলে জুবায়দুল হক জানান ৬ মাস আগে তার চাচাতো ভাই নজরুল সরদার ও ইসরাফিল ইসলাম বাবু আমিন নিয়ে এসে স্কুলের কাউকে না জানিয়ে স্কুলের ১০ ফুট ভেতরে জমি পাবে বলে খুটি মেরে যায়। স্কুলের প্রধান শিক্ষক শাহিন সুলতানা, ২ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য হরে কৃষ্ণ মন্ডল জানান, তারা অধিকাংশ সময় স্কুলের ভেতরে এসে অকথ্য ভাষায় গালি দেয়। স্থানীয় ইন্দ্রজীৎ মন্ডলের ছেলে আশুতোষ মন্ডল ও জগন্নাথ মন্ডলের ছেলে নিতাই মন্ডল জানান, যেখানে প্রতিষ্ঠান তৈরি হচ্ছে তার পেছনেও স্কুলের ভোগ দখলীয় রেকর্ডীয় জমি এবং ৫০ শতকের মধ্যে ৪৭ শতক জমি তাতে ৩ শতক জমি কম আছে। এই জমির বিষয় শুক্রবার নজরুল সরদার ও ইসরাফিল ইসলাম বাবু থানায় অভিযোগ দিলে এ এস আই রেজা ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করেন এবং বাদীদের শনিবার আমিন নিয়ে আসার কথা বলেন। কিন্তু তারা আমিন না নিয়ে এসে বাঁধা এবং হুমকি দিচ্ছে। বিষয়টি চরম আকার ধারন করার আগেই নিস্পত্তির জন্য জনপ্রতিনিধি ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন  এলাকাবাসী।

মোঃ নুর আলম