কলারোয়া লাঙ্গলঝাড়া ইউপি চেয়ারম্যানসহ ৬ জনকে আসামী করে সাতক্ষীরা আদালতে মামলা

0
291

ইয়ারব হোসেনঃ

উপজেলার লাঙ্গলঝাড়া গ্রামের মৃত ইয়ারব মোল্যার ছেলে রেজাউল ইসলাম রেজা বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামীরা হলেন, লাঙ্গলঝাড়া গ্রামের মৃত জব্বার শেখের ছেলে লাঙ্গলঝাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মাস্টার নুরুল ইসলাম (৪৫), গাজনা গ্রামের আব্দুল কাদেরের মেয়ে স্বপ্না খাতুন (৩২), একই গ্রামের মৃত তফেলউদ্দীন ছেলে ওজিয়ার সানা (৫৫), গোয়ালচাতর গ্রামের মৃত বেলাল আলীর ছেলে শাহাজাহান আলী (৫০), লাঙ্গলঝাড়া গ্রামের মৃত খালেক মল্লিকের ছেলে কাদের মল্লিক ও মৃত বারেক সরদারের ছেলে কবিরুল ইসলাম (২৭)। মামলার বিবরণে জানা যায়, বাদীর সাথে ২নং আসামীর স্বপ্না খাতুন এর বিয়ে হয়। তাদের  সুমি খাতুন (১৫) ও রুমি খাতুন (০৯) নামে দুটি সস্তান রয়েছে। সম্প্রতি তাদের মধ্যে বনিবনা না হওয়ায় আপোষ তালাক হয়। তালাকের কিছুদিনপর বাদী বাড়িতে না থাকার সুযোগে ১নং আসামী ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে বাদীর বাড়িতে  প্রবেশ করে ঘরের আসবাবপত্রসহ মালামাল  লুট করে নিয়ে যায়। ঘরে তালা লাগিয়ে দিয়ে তালার চাবি ইউপি চেয়ারম্যানের হেফাজতে রাখে। বর্তমানে লুট করা মালামাল ৩নং আসামী ওজিয়ার সানার বাড়িতে রয়েছে। যা উদ্ধার করা না হলে মালামাল গুলো নষ্ট হবে। ঘরের চাবিটা উদ্ধার না হলে বাদীসহ পরিবারের লোকজন ঘরে উঠতে না পেরে খোলা আকাশের নীচে অবস্থান করছে বলে স্থানীয়রা জানিয়েছেন। এ ঘটনায় বাদী সাতক্ষীরা বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ওই ৬ জনকে আসামী করে একটি অভিযোগ দাখিল করে। বিজ্ঞ আদালত অভিযোগটি আমলে নিয়ে সরাসরি আদালতে হাজির হয়ে জবাব দেওয়ার জন্য সমন জারি করেন। এ ব্যাপারে ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার নুরুল ইসলাম জানান, যার মালামাল সেই নিয়ে গেছে। এ বিষয়ে কিছু জানিনা, তবে চেয়ারম্যান হিসেবে একদিন তিনি তাদের বাড়িতে গিয়েছিলেন। এমনকি আদালতের কোন কাগজপত্র তিনি পাননি।