কলারোয়ায় ভাইপোর সন্ত্রাসী হামলায় চাচা গুরুত্বর আহত: থানায় মামলা

0
135

কলারোয়া প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার কলারোয়াতে জমাজমি বিরোধের জেরধরে দুই ভাইপোর সন্ত্রাসী হামলায় চাচা খলিলুর রহমান এখন হাসপাতালে। তার দুই পা রড দিয়ে পিটিয়ে গুরুত্বর জখম করেছে ভাইপোরা। বৃহস্পতিবার রাতে কলারোয়ার কেরালকাতা ইউপি সদস্য মিজানুর রহমানের বাড়ির সামনে এই হামলার ঘটনা ঘটে। আহত চাচার নাম খলিলুর রহমান তিনি জেলার কলারোয়া উপজেলার কেরালকাতা ইউনিয়নের কাউরিয়া গ্রামের মৃত হকির আলী গাজীর ছেলে। সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খলিলুর রহমান জানান, ১৫/২০ বছর আগে পৈত্রিক সম্পত্তি ভাগবাটোয়ারা হয়ে যায়। দীর্ঘদিন পর এসে বড় ভাই ওমর আলীর দুই ছেলে কবিরুল ও মনিরুল এখন চাচা খলিলুরের কাছে দাবী করে তার মধ্যে দেড় বিঘা জমি আছে। দাবীকৃত জমি চাচা খলিলুর ছেড়ে না দেয়ায় বৃহস্পতিবার রাতে বাজার থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে ইউপি সদস্য মিজানুরের বাড়ির সমনে পৌছানো মাত্রই পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা সন্ত্রাসী ভাইপো কবিরুল ও মনিরুল লোহার রড ও ধারালো অস্ত্র নিয়ে চাচা খলিলুরের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ে। এসময় তার দুই পা রড দিয়ে পিটিয়ে ভেঙ্গে গুড়ো করে দেয়।
হাসপাতালে চিকিৎধীন খলিলুর রহমান আরও জানান, তার বড় ভাই ওমর আলীর আরেক ছেলে রবিউল পুলিশের এ এস আই পদে চাকুরি করে। সে বর্তমানে যশোর জেলায় কর্মরত। তার ইন্ধনে অপর দুই ভাই বৃহস্পতিবার এই হামলা চালিয়েছে বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, আমার তিনটি কন্যা সন্তান থাকায় আমার এই দু:সময়ে অপর ভাইপো মিন্টু তার দেখা শুনা করায় তাকেও পিটিয়ে আহত করার জন্য খুজে বেড়াচ্ছে অপর দুই সন্ত্রাসী ভাইপোরা।
এদিকে হামলার পরপরই আহত খলিলুরকে রাতেই প্রথমে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হলে সেখানকার ডাক্তাররা গুরুত্বর দেখে ভর্তি না নিয়ে রাতেই সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন। তাৎক্ষনিক তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়। বর্তমানে তার অবস্থা আশংকা জনক বলে জানান চিকিৎসকরা।
এঘটনায় আহত খলিলুরের স্ত্রী মোহসেনা খাতুন বাদী হয়ে দুই জনকে জ্ঞাত ও ৪/৫ জনকে অজ্ঞাত দেখিয়ে কলারোয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-১১। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি বলে জানাগেছে।

এস এম পলাশ