কলারোয়ার জয়নগরে পেট্রোল ছিটিয়ে আগুন দিয়ে এক কুষককে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে দূর্বৃত্তরা

0
238
শহর প্রতিনিধি:
পেট্রোল ছিটিয়ে আগুন দিয়ে এক কুষককে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে দূর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার গভীর রাতে কলারোয়া উপজেলার জয়নগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আশংকা জনক অবস্থায় তাকে সদর হাসপাতালে ভতি করা হোয়েছে। আহত কৃষকের দুই হাত ও মাথা আগুনে পুড়ে ঝলসে গেছে।
অভিযোগ উঠেছে সরকাঠি পুলিশ ফাঁড়ির এসআই তারেক এ ঘটনা ভিন্নভাবে প্রচার চালাচ্ছে। ঘটনার সাথে জড়িতদের রক্ষা করতে তিনি মাঠে নেমেছে।
আগুনে ঝলসানো কৃষক আব্দুল হামিদ জানান,তিনি ও তার স্ত্রী প্রতিদিনের মত বারন্দায় ঘুমিয়ে ছিল। রাতে তিনি প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে রাত ২টার দিকে বাইরে আসে। তিনি বিছানায় যাওয়ার পর হঠাৎ করে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে থাকে। তিনি কিছু বুঝে উঠার আগে তার দুই হাত ও মাথা আগুনে পুড়ে যায়। তিনি বলেন একই গ্রামের শামিম ও বজলুর মেম্বর সাথে জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে। তিনি এ ঘটনায় কলারোয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। আগুনের ঘটনার আগে থেকে সরকাঠির পুলিশ ফাঁড়ির এসআই তারেক শামিম ও বজলু মেম্বারের সাথে গভীর সম্পর্ক রয়েছে। তাদের বাড়িতে এসে খাওয়া দাওয়া করে থাকে। তিনি এ ঘটানটি সাজানো বলে প্রচার দিচ্ছে।
আহত আব্দুল হামিদের ছেলে আব্দুল্লাহ জানান,তার পিতাকে হত্যার জন্য  পেট্রোল ছিটিয়ে দিয়ে তাতে আগুন লাগিয়ে দেয়। আগুনে মশারি,লেপ কাথাসহ বিভিন্ন জিনিসপত্র পড়ে যায়। আগুনে তার পিতার দুই হাত ও মাথা পুড়ে গেছে। আগুন নেভাতে পানি ঢাললে আগুন আর বাড়তে থাকে। পাশে একটি বোতল পাওয়া যায়। জমি নিয়ে বিরোধকে কেন্দ্র করে তার পিতাকে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়েছে। তাকে উদ্ধার সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
সরসকাঠির পুলিশ ফাঁড়ির এসআই তারেক হাসপাতালে জানান, ঘটনাটি সাজানো নাটক। নিজের গায়ে আগুন দিয়ে অন্যকে ফঁসাতে চেষ্টা করা হচেছ।
কলারোয়া থানার ওসি বিপ্লব কুমার নাথ জানান, তিনি ঘটনা জানার সাথে সাথে ওই বাড়িতে গেছেন।পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলেছেন। ধারনা করা হচেছ আগুন নিভাতে যেয়ে তিনি অগ্নিদগ্ধ হতে পারেন। এ ছাড়া আগুনে বিষয়টি পুলিশ গুরুত্ব দিয়ে দেখছে।