এফিডেফিট করে না দেয়ায় পরিবারের সদস্যদের নামে মামলা দিয়ে হয়রানির অভিযোগ

0
95

প্রেস বিজ্ঞপ্তি:

সাতক্ষীরায় একটি মাদক মামলায় স্বাক্ষী এফিডেফিট করে না দেয়ায় আসামী পক্ষরা ওই স্বাক্ষী ও তার পরিবারের সদস্যদের নামে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করছে বলে অভিযোগ উঠেছে। শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে এই অভিযোগ করেন জেলার শ্যামনগর উপজেলার গৌরীপুর গ্রামের ইস্রাফিল মিস্ত্রীর স্ত্রী মোছা: বিলকিস আক্তার। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিরি বলেন, শ্যামনগর উপজেলার গৌরীপুর গ্রামের মৃত তাহের উদ্দিনের ছেলে মোজাম্মেল মিন্ত্রী শ্যামনগর থানার অস্ত্র ও ফেন্সিডিল পাচার মামলার আসামী। তার স্বামী ইস্রাফিল মিস্ত্রী ওই মামলার একজন স্বাক্ষী। আসামী মোজাম্মেল ও রহমত মিস্ত্রী এবং মোক্তার মিস্ত্রী তার স্বামীকে আদালতে স্বাক্ষী না দিয়ে আসামীর পক্ষে এফিডেফিট করে দিতে বলে। তাদের কথামত এফিডেফিট করে না দেয়ায় মোজাম্মেল তার ছেলে বৌকে দিয়ে আমার ও আমার স্বামী, সপ্তম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্র ও আমার দেবর এবং জার বিরুদ্ধে গত ১৩ জুন শ্যামনগর থানায় (২৫/১৩) একটি মিথ্যে মামলা করে। একই সাথে সন্ত্রাসীদের দিয়ে আমার পরিবারের সদস্যদেরকে প্রাণনাশের হুমকি ও বাড়িতে হামলার হুমকি ধামকি দিচ্ছে। তাদের ভয়ে পরিবারের সদস্যদের নিয়ে বর্তমানে তিনি চরম নিরাপত্তহীনতায় ভুগছেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, মোজাম্মেল গংরা বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নাম ভাঙ্গিয়ে এলাকার সরকারি খাসজমি দখলসহ সরকারি সম্পত্তি আত্মসাৎ করে। এ ঘটনায় আদালতে দেওয়ানী ৩০/০৯ নং একটি মামলা রয়েছে। তারা সবাই সন্ত্রাসী হওয়ায় ভয়ে এলাকার কেউ তাদের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে সাহস পায়না। কেউ মোজাম্মেল গংদের অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে গেলে তার বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়। ফলে এলাকার সাধারন মানুষ তাদের কাছে একরকম জিম্মি হয়ে পড়েছে। তিনি মোজাম্মেল গংদের অন্যায়, অত্যাচার ও নির্যাতন থেকে নিষ্কৃতি পেতে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের জরুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেন।