একনেকে ১১ প্রকল্প অনুমোদন

0
116

অনলাইন ডেস্ক :

বাংলাদেশ আঞ্চলিক আবহাওয়া ও জলবায়ু সেবাসহ ১১ প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। এসব প্রকল্প বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৩ হাজার ৬৮৪ কোটি ৫০ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ২ হাজার ৬৪১ কোটি ৯৯ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে ৮৮ কোটি ৪৩ লাখ টাকা এবং বৈদেশিক সহায়তা থেকে ৯৫৪ কোটি ৮ লাখ টাকা যোগান দেয়া হবে।
মঙ্গলবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনা। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনা মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।এ সময় উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা সচিব জিয়াউল ইসলাম, পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব কে এম মোজাম্মেল হক এবং ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য জুয়েনা আজিজ।

পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, বর্তমান সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে ১০০টি একনেক বৈঠক অনুমোদন হয়েছে। এতে ৭৩৩টি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। এগুলোর ব্যয় ৭ লাখ ৬৩ হাজার ৩০৯ কোটি ৭৫ হাজার টাকা। এ রেকর্ড ব্রেক করতে বহুদিন সময় লাগবে। তিনি বলেন, ঢাকা উত্তর সিটিতে ৫ হাজার সিসি টিভি বসানো হবে। সেখানে মোবাইল টিম থাকবে। ফলে ক্রাইম ও যানজট কমবে।পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, প্রধানমন্ত্রী বলেছেন এখন থেকে যেখানে রেল ক্রসিং থাকবে সেখানে ওভারপাস নির্মাণ হবে। এছাড়া সীমান্তবর্তী জেলাগুলোতে রাস্তা তৈরির মাধ্যমে সীমান্ত চিহ্নিতের নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী নির্দেশে কুমিল্লা বিভাগের নামকরণ হবে ময়নামতি। এছাড়া এখন থেকে নতুন বিভাগ হলে জেলার নামে হবে না।

অনুমোদিত প্রকল্পগুলো হচ্ছে, বাংলাদেশ আঞ্চলিক আবহাওয়া ও জলবায়ু সেবা প্রকল্প, এটি বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৯৭৯ কোটি ৯৮ লাখ টাকা। আলীকদম-জালানীপাড়া-করুকপাতা-পোয়ামুহুরী সড়ক নির্মাণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৭৪ কোটি ১ লাখ টাকা। গোপালগঞ্জ এবং বাগেরহাট পৌরসভায় পানি সরবরাহ ও এনভায়রনমেন্টাল স্যানিটেশন ব্যবস্থার উন্নতিকরণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ১৬৫ কোটি ১৯ লাখ টাকা। কোর্ট হতে রাজশাহী বাইপাস সড়ক পর্যন্ত সড়ক প্রসস্তকরণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ১০৬ কোটি ৫৮ লাখ টাকা। বৃহত্তর নোয়াখালী পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন-২ (প্রথম সংশোধিত) প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৫৯২ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৪০ কোটি ১৩ লাখ টাকা। উপজেলা পর্যায়ে মহিলাদের জন্য আয়বর্ধক প্রশিক্ষণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ২৫০ কোটি ৫৬ লাখ টাকা। বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন (প্রথম সংশোধিত) প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ১৮৩ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। ঢাকা কারিগরি শিক্ষক প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট স্থাপন প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৮৬ কোটি টাকা। সাভার সেনানিবাসে মিলিটারি পুলিশ সেন্টার ও স্কুল নির্মাণ প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ১৬৩ কোটি ৫৭ লাখ টাকা। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় এলইডি সড়কবাতি, সিসিটিভি, ক্যামরা ও সিসিটিভি কন্ট্রোল সেন্টার সরবরাহ ও স্থাপন প্রকল্প, এর ব্যয় ধরা হয়েছে ৪৪২ কোটি ১৪ লাখ টাকা।

এস এম পলাশ