‘একটি বোতামে পৃথিবী ধ্বংস সম্ভব’

0
73
দুটি উন্মাদনা নিয়ে বিশ্ববাসীকে সতর্ক করে দিয়ে শান্তিতে নোবেল জয়ী প্রফেসর মুহাম্মদ ইউনূস বলেছেন, পারমাণবিক অস্ত্রের প্রসার এবং পুঁজিবাদী অর্থব্যবস্থা দুটোই পৃথিবীর জন্য বিধ্বংসী।
তিনি বলেন, পারমাণবিক সমরাস্ত্র এবং যার ফলে, কার্যত একটি বোতাম টিপে পৃথিবীকে বহুবার ধ্বংস করা সম্ভব এবং আরেকটি হচ্ছে আমাদের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা যা ক্রমাগতভাবে পৃথিবীর সব সম্পদ গুটিকয়েক ব্যক্তির হাতে কেন্দ্রীভূত করে চলেছে।
গতকাল রাজধানীর ইউনূস সেন্টার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য দেয়। পোপ ফ্রান্সিস আয়োজিত পারমাণবিক নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ক ভ্যাটিকান শীর্ষ সম্মেলনের উদ্বোধনী সেশনে এসব কথা বলেন মুহাম্মদ ইউনূস।
ভ্যাটিকানের অ্যাপোস্টলিক প্রাসাদে ১০ নভেম্বর অনুষ্ঠিত এই সম্মেলনে আরও বক্তব্য রাখেন পোপের সেক্রেটারি অব স্টেট কার্ডিনাল পিয়েত্রো পারোলিন, কার্ডিনাল পিটার কে. এ. টার্কসন, বেশ কয়েকজন নোবেল লরিয়েট এবং জাতিসংঘ নেতৃবৃন্দ।
প্রফেসর ইউনূস বলেন, অর্থনৈতিক ব্যবস্থার ত্রুটি দূর করতে পুঁজিবাদী কাঠামোটিকে কীভাবে এখনই পুনর্বিন্যাস করা প্রয়োজন সেটি ভেবে দেখতে হবে। এজন্য তিনি সামাজিক ব্যবসার ওপর গুরুত্ব দেন। বর্তমান উন্মত্ততা থেকে পৃথিবীকে রক্ষা করতে তিনি তার ‘তিন শূন্য’ অর্থাৎ শূন্য দারিদ্র্য, শূন্য বেকারত্ব ও শূন্য নিট কার্বন নিঃসরণের ওপর জোর দেন।
এরই পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, আমরা আমাদের লক্ষ্যগুলোর সঙ্গে আরও একটি লক্ষ্য যোগ করতে পারি, আর তা হচ্ছে শূন্য পারমাণবিক সমরাস্ত্র। প্রফেসর ইউনূস আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের উত্থানের বিপদ সম্পর্কেও সতর্ক বাণী উচ্চারণ করেন।
তিনি বলেন, এর ফলে লাখ লাখ মানুষ বেকার হয়ে পড়বে। পৃথিবীজুড়ে লাখ লাখ পরিবারের জীবনে এর ফলাফল হবে বিধ্বংসী। মানুষের পক্ষে চাকরি খুঁজে বেড়ানোটাই শুরুতে বন্ধ করতে হবে মন্তব্য করে তিনি বলেন, মানুষ জন্মগতভাবেই উদ্যোক্তা, চাকরি প্রত্যাশী নয়। অর্থনৈতিক তত্ত্ব মানুষকে ভুল পথে পরিচালিত করেছে। আমরা উদ্যোক্তা হলে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স আমাদের জীবনকে ধ্বংস করে দেওয়ার বিপদ থাকত না।