ঈদের দিনে মাংস খেতে ডাস্টবিনে গেলেন তিনি

198
1230

অনলাইন ডেস্ক:

আইজকা ঈদের দিনে খাওনের কিছু নাই। তাই এহান (ডাস্টবিন) তনে গোস্ত বাইছা লইয়া যাইতেছি।’ বলছিলেন ঈদের দিনে রাজধানীর ডাস্টবিনের ময়লা থেকে মাংসের উচ্ছিষ্টাংশ বাছতে থাকা এক বৃদ্ধা।

আজ শনিবার সকালে ঈদুল আজহার কোরবানি শেষে ঢাকার উত্তরার আজমপুরের ব্রিজের পাশের ডাস্টবিনের সামনে গেলে দেখা যায় এই দৃশ্য। ওই ডাস্টবিনে কোরবানির উচ্ছিষ্ট বর্জ্য ফেলেছেন উত্তরাবাসী। আর ওই বর্জ্যেই কী যেন খুঁজছেন এক বৃদ্ধা।

একটু কৌতূহলী হয়েই প্রতিবেদক ওই নারীর সঙ্গে কথা বলেন। আর শাহানা বেগম নামের ওই বৃদ্ধা জানান, কোরবানির ঈদে মাংস খেতে ময়লার স্তূপে মাংস খুঁজছেন তিনি।

শাহানা বেগম জানালেন, তাঁর তীব্র মাথাব্যথা হয়। আর এর চিকিৎসা করাতে চারদিন আগে নাটোর থেকে ঢাকায় এসেছেন তিনি। কিন্তু কীভাবে চিকিৎসা করাবেন, কোথায় করাবেন সেসবের কিছুই জানেন না তিনি।

প্রতিবেদককে শাহানা বলেন, ‘বাজান, চিকিৎসা করাইতে ট্রেনে করে ঢাকা আইছি। স্বামী মইরা গেছে ১৫ বছর আগে। দুইডা পুলা। বিয়া কইরা বিন (আলাদা) খায়। আমার খোঁজ ন্যাওনের সময় নাই কারো।’

শাহানা বেগম জানালেন, গ্রামের লোকের কথায় অচেনা, অজানা ঢাকা শহরে এসে বিপদে পড়েছেন তিনি।

প্রতিবেদককে শাহানা বেগম আরো বলেন, ‘মাথায় কি জানি হইছে। মাথাব্যথায় বাঁচিনে। গ্যারামের এক লোক কইল, ঢাকায় হাসপাতালে যাও তুমার ফিরিতে (বিনামূল্যে) চিকিৎসা অইব। তাই ঢাকায় আইছি। থাকনের জায়গা নাই। রাস্তায় থাকতেছি।’

‘আইজকা ঈদের দিনে আমারে কে গোস্ত দিব! তাই এইখানে গোস্ত লইতে আইছি।’ বলেন অসহায় ওই বৃদ্ধা।

কোরবানির ঈদে ঢাকা শহরের প্রতিটি মহল্লায় বাড়িতে বাড়িতে কোরবানির পশুর মাংস বিতরণ করা হয়। সেই তথ্যও নেই শাহানার কাছে। তাই খুশির দিনে খেতে না পেয়ে ডাস্টবিনের উচ্ছিষ্ট বর্জ্য থেকে মাংস কুড়িয়েই শাহানা বেগমের ঈদ উদযাপন।

198 COMMENTS