ইতিহাস বিকৃতি করা হয়েছে ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে : আইনমন্ত্রী

0
61

অনলাইন ডেস্কঃ

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বক্তব্য ব্যবহার করা হয়েছে। এ বক্তব্যের মাধ্যমে ইতিহাস বিকৃতি করা হয়েছে। এসব এক্সপাঞ্জ করার প্রয়োজন হলে রিভিউ করবে সরকার।রোববার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন মন্ত্রী। আইনমন্ত্রী বলেন, ‘মাননীয় প্রধান বিচারপতির রায়ে আপত্তিকর ও অপ্রাসঙ্গিক বক্তব্য আছে। সেগুলো এক্সপাঞ্জ করার উদ্যোগ আমরা নিয়েছি। এগুলো এক্সপাঞ্জ করার জন্য সুপ্রিম কোর্টের বিধান অনুযায়ী যদি রিভিউ করার প্রয়োজন হয় তাহলে আমরা রিভিউ করব। তিনি বলেন, সেগুলো এক্সপাঞ্জ করতে গেলেও কিন্তু আমরা সরাসরি এক্সপাঞ্জ করার আবেদন করতে পারি না। সুপ্রিম কোর্টের রুল বলে এটা রিভিউয়ের মধ্যমেই এক্সপাঞ্জের আবেদন করতে হবে। আইনমন্ত্রী বলেন, আমরা কিন্তু কোনো পাওয়ার কন্টেস্টে নামিনি। পথ চলতে ভুল বোঝাবুঝি হতেই পারে । এটা নিরসনে যে ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা দরকার সেসব পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ইতিহাস বিকৃতি যে হয়েছে এর কোনো সন্দেহ নেই। কারণ আপনারা জানেন যে, আমাদের স্বাদীনতা কিন্তু রাতারাতি আসেনি। এটা একটা পলিটিক্যাল মুভমেন্টের মাধ্যমে ১৯৭১ সালে এসেছিল এবং ফাইনালি বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান জনগণের রায়ের প্রেক্ষিতে ২৬ মার্চ স্বাধীনতা ঘোষণা করেছিলেন। এক্ষেত্রে এটাকে আমি বিকৃত করলেও আমি একটা অপরাধ করব। তবে এটা অসদাচরণের মধ্যে পড়ে কি না সেটা বলা মুশকিল। কারণ অসদাচরণের কোনো সজ্ঞা এখন পর্যন্ত নেই। সেক্ষেত্রে এটা খতিয়ে দেখতে হবে। তিনি বলেন, ‘এটা অসদাচরণ হয়েছে কি না অথবা অন্যকিছু হয়েছে কি না তা খতিয়ে দেখার অবকাশ রয়েছে। এক্ষেত্রে শাস্তির বিধান একমাত্র মহামান্য রাষ্ট্রপতির কাছে। তার কারণ হচ্ছে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল ও ষোড়শ সংশোধনী যদি না থাকে তাহলে রাষ্ট্রপতি ছাড়া আর কেউ থাকে না’।