ইছামতি নদীতে দুই বাংলার মিলন মেলা পরিপূর্ণ হোক

0
145

বরুণ ব্যানার্জী :
বাঙ্গালি হিন্দু সম্প্রদয়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পুজার শেষ দিন মঙ্গলবার বিজয়া দশমীতে প্রতিমা বির্সজনকে কেন্দ্র করে বসেছিল দুই বাংলার মানুষের মিলন মেলা। সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার সীমান্তের ইছামতি নদীতে নিজ নিজ জল সীমার মধ্যে থেকে ১৮৬৮ সাল থেকে বসে এই মিলন মেলার। আর্ন্তজাতিক সীমানা মুছে দুই বাংলার মানুষ কিছুক্ষণের জন্য হলেও একাকার হয়ে যায় এই বির্সজনকে ঘিরে। তবে দুই দেশের সরকারের নির্দেশে আন্তর্জাতিক সীমারেখা পার হয়ে দুই দেশের লোক যাতায়াত করতে পারবেন না বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেয়া হয়। এনিয়ে ব্যাপক ক্ষোভ দেখা দিয়েছে সাধারণ মানুষের মধ্যে। আবহমানকাল থেকে বাঙালী সংস্কৃতিতে বিশ্বাসী দুই বাংলার মানুষ এই দিনটির জন্য গভীর আগ্রহে অপেক্ষায় থাকে। প্রতি বছর বিজয়া দশমীতে এই মিলনমেলায় অংশ নিয়ে আতœীয়-স্বজনদের সাথে স্বাক্ষাত করেন এপার ওপার বাংলার মানুষ। যোগদান করেন জন্য সীমান্তের ইছামতি নদীতে আসেন দুই বাংলার প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তারা। তবে ২০১৩ সালে বন্ধ হয়ে যায় এ মিলন মেলাটি। এ বছর পুনরায় মেলাটি অনুষ্ঠিত হলেও নিজ, নিজ জলসীমানার মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। সকলের দাবি দুই সরকারের সমঝতায় আগের মতো প্রাণ ফিরে পাক মেলাটি। একাকার হয়ে মিলন ঘটুক দুই বাংলার মানুষের।