আশাশুনির পুটিমারী গেটের খাল স্বেচ্ছাশ্রমে খনন কাজ চলছে

0
65

আশাশুনি প্রতিনিধি:

আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নে জলাবদ্ধতা দূর করতে এবং পয়ঃ নিস্কাশন ব্যবস্থা স্বাভাবিক রাখতে পুটিমারী স্লুইস  গেটের খাল খনন করা হচ্ছে। গেটটির নীচের অংশ প্রায় ৫ ফুট মত মাটির নীচে তলিয়ে গেছে। পুটিমারী স্লুইস গেট দিয়ে তালা, পাইকগাছা, সাতক্ষীরা সদর ও আশাশুনি উপজেলার বিভিন্ন খাল-বিল ও গ্রামের পানি নিস্কাশন হয়ে আসছিল। কিন্তু খালটি পলিমাটিতে ভরাট হয়ে যাওয়ায় পয়ঃ নিস্কাশন ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়েছে। বর্তমানে গুনাকরকাটি বেজেরডাঙ্গা ও মাদারবাড়িয়া এলাকার পানি নিস্কাশন হয়ে থাকে এই খাল দিয়ে। কিন্তু গেটের বাইরে ও ভিতরের খাল পলিমাটিতে ভরাট হয়ে যাওয়ায় নদীর পানি ভিতরে ঢুকলেও ভিতরের পানি বাইরে নদীতে যেতে পারেনা। গেট ও গেটের পাটগুলো ৫ ফুট মত নীচের অংশ মাটিতে ডুবে গেছে। এছাড়া গেটের বাইরের মুখের দুটি পাট নষ্ট হয়ে যাওয়ায় জোয়ারের পানি নিয়মিত ভিতরে ঢুকে থাকে। ফলে দিন দিন খালটিতে পলি জমতে জমতে ভরাট হয়ে যাচ্ছে। এতে খাল-বিল ও গ্রামের পানি নিস্কাশন হতে না পেরে ফসলী জমি, বসত ভিটা, মৎস্য ঘেরসহ সকল এলাকা জলসমগ্ন হয়ে পড়ছে। সম্প্রতি একটানা বৃষ্টিপাতে এলাকা একাকার হয়ে গেছে। একটু নীচু এলাকায় বসবাকারীদের বসবাস কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। বীজতলা ও কিছু কিছু মাছের ঘের তলিয়ে যাওয়ায় সমস্যা প্রকট হতে চলেছে। দুর্গতির হাত থেকে রক্ষা পেতে কুল্যা ইউনিয়ন আ.লীগ সভাপতি ইয়াহিয়া ইকবাল, কৃষকলীগ সাবেক সভাপতি নুরউদ্দীন, মেম্বার ইব্রাহিমের নেতৃত্বে এলাকার মানুষের সহযোগিতায় গত শনিবার বিভিন্ন মসজিদে মাইকিং করে স্বেচ্ছাশ্রমে মাটি কাটার ঘোষণা দেওয়া হয়। এই ঘোষণার সাথে সংহতি প্রকাশ করে গত রোববার সকালে এলাকার শত শত মানুষ পুটিমারী স্লুইস গেটের খালে গিয়ে হাজির হয় এবং খাল থেকে পলিমাটি অপসারন করার কাজ শুরু করেন। গত ৫/৬ দিনে গেটেই বাইরের মুখের মাটি ও ভিতরের মাটি কেটে আপাতত পানি নিস্কাশন পথ সুপ্রশস্থ করার কাজ করা হয়েছে। এটি সাময়িক ও আপাতত পানি নিস্কাশনের জন্য করা হলেও দীর্ঘস্থায়ী এবং এলাকার পানি নিস্কাশন কাজ স্বাভাবিক করতে খালগুলো আরও চওড়া ও গভীর করে খনন করা দরকার। পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং উপজেলা ও জেলা প্রশাসনের আশু পদক্ষেপ গ্রহণ করা দরকার। এলাকার ফসল ও মাছসহ সকল প্রকার ক্ষয়ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করা এবং জনজীবনের দুর্ভোগ লাঘবে পুটিমারী নদী নামে পরিচিত খালটি খননের পাশাপাশি নদীর পাশের গেটের খালের মুখ থেকে পলি অপসারনে কার্যকর পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য এলাকাবাসী মাননীয় সংসদ সদস্য ও উপজেলা চেয়ারম্যানের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছে।

জি এম মুজিবুর রহমান