আশাশুনিতে ৩০ টাকার সার ১৩০ টাকায় বিক্রী ॥ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

0
115

আশাশুনি প্রতিনিধি :

আশাশুনি উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের পাইথালী বাজারে ৩০ টাকা কেজি দরের সার ১৩০ টাকায় বিক্রীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে স্থানীয় ভাবে সালিশী বৈঠকে ব্যবসায়ীকে ২০০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বুধহাটা ইউনিয়নের নৈকাটি গ্রামের মৃত ময়জিন মোড়লের ছেলে আবু তালেব মোড়ল মৎস্য ঘেরে ব্যবহারের জন্য পাইথালী বাজারের মমিন গাজীর মেসার্স নাহিদ স্টোর থেকে এক কেজি করে ওজনের প্যাকেটে থাকা “কৃষি শক্তি” নামে জীপশাম সার ক্রয় করেন। পরে আবু তালেব বুধহাটা বাজার থেকে একই সার মাত্র ৩০ টাকা প্যাকেট দরে ক্রয় করেন। তিনি সারগুলো নিয়ে নাহিদ স্টোরে গিয়ে বেশী দাম নেওয়ার বিষয়ে কৈফিয়ত চাইলে এনিয়ে দ্বন্দ্ব হয়। তখন স্থানীয় পুলিশিং কমিটির সভাপতি বিজন মন্ডল উভয়কে নিয়ে সালিশে  বসে ব্শেী দামে সার বিক্রয় করার অভিযোগে ব্যবসায়ীকে ২০০০ টাকা জরিমানা করেন। বিজন মন্ডলের সাথে কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন। বাজার কমিটির সভাপতি অবঃ সেনা সদস্য হযরত আলি জানান, পাইথালী গ্রামের ছাবের সরদারের ছেলে বকুল উক্ত মমিনের দোকান থেকে ৩ বস্তা কৃষি শক্তি সার ৪০০ টাকা দিয়ে ক্রয় করে বুধহাটা থেকে একই সার মাত্র ৯০ টাকা মূল্যে ক্রয়ের পর ফিরে মমিনের সাথে গন্ডগোল করেন। তখন তিনি (সভাপতি) সালিশ করে অতিরিক্ত টাকা ফেরতের ব্যবস্থা করেছিলেন। বিষয়টি নিয়ে এলাকায় ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। এ ব্যাপারে মমিনের সাথে কথা বললে তিনি সালিশে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তিনি বুধহাটার গাজী এন্টারপ্রাইজ থেকে প্রতি প্যাকেট ১১০ টাকা করে কিনে এনে ১৩০ টাকা দরে বিক্রয় করেছেন। গাজী এন্টারপ্রাইজের স্বত্তাধিকারী আনোয়ার হোসেন জানান, আমাদেরকে ব্যবসায়িক ক্ষতি করতে প্রতিপক্ষ লোকসান করে কমমূল্যে সার বিক্রয় করছে। সেগুলো ২নং সার কিনা বলতে পারবো না। বিষয়টি ক্ষতিয়ে দেখতে এলাকাবাসী উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

জি এম মুজিবুর রহমান