আশাশুনিতে হাতির চাঁদাবাজি অপ্রতিরোধ্য ॥ পথচারীরা নাজেহাল

0
64

আশাশুনি প্রতিনিধি:

হাতি বৃহদাকার প্রাণি হিসেবে দর্শনার্থীদের কাছে কৌতুহলের বিষয় । সেই হাতি যদি হাতেকাছে উপস্থিত হয় তাহলে দর্শনার্থী মানুষের উপচে পড়া ভিড় হবে সে কথা বলার অপেক্ষা রাখেনা। কিন্তু চাঁদাবাজির যন্ত্রণায় মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠলে বিড়ম্বনার অন্ত থাকেনা। আশাশুনির মানুষ উৎসাহ নিয়ে হাতি দেখার খেই হারিয়ে ফেলেছে। যন্ত্রনার আধিক্যতায় ছটফট করছে। প্রতিদিন সকালে বুধহাটা থেকে একটি বড় হাতি বের হয়ে সড়কে সড়কে ঘুরছে। রাস্তার উপরে সকল প্রকার যানবাহন থেকে শুরু করে পথচারীদেরকে আটকে রীতিমত চাঁদাবাজী করা হচ্ছে। কখনো কখনো বাড়ির ভিতরে, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা চালান হচ্ছে। রাস্তার উপর দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। ২/৫ টাকা দিলে মাউতের বিশেষ সংকেতে হাতি শুঁড় দিয়ে ছুড়ে ফেলে দিয়ে থাকে। ভয় দেখিয়ে থাকে। বাধ্য হয়ে ১০/২০/৫০ টাকা হাতির মুখে তুলে দিয়ে নিস্কৃতি পাচ্ছে। অনেকে হাতির অকস্মাৎ আচরণে ভীত সন্ত্রস্থ হয়ে পড়ছে। কেউ কেউ হতির আচমকা হুংকারে অসুখে ভুগছে। বিষয়টি উপজেলা প্রশাসন ও থানাকে অবহিত করা হলে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। বরং প্রতিদিন হাতির অত্যাচারে অতিষ্ঠ হচ্ছে এলাকাবাসী। আজ শনিবার শোভনালী, আশাশুনি সদর ইউনিয়ন হয়ে আশাশুনি-বুধহাটা সড়ক ধরে এই অত্যাচার চলেছে। অপ্রতিরোধ্যই থাকবে কি হাতির অত্যাচার? এ প্রশ্ন চাঁদাবাজি ও অত্যাচারের শিকার সর্বস্তরের মানুষের।

জি এম মুজিবুর রহমান

LEAVE A REPLY