আশাশুনিতে ভূমিহীনদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় ইউএনও বরাবর আবেদন

0
36

আশাশুনি প্রতিনিধি:

আশাশুনিতে খাসজমি-জলমহালে ভূমিহীন ও মৎস্যজীবীদের নিরঙ্কুশ অধিকার প্রতিষ্ঠার আবেদন জানিয়েছেন উপজেলার ভূমিহীন ও মৎস্যজীবী অধিকার সমন্বয় কমিটির নেতৃবৃন্দ। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা সুষমা সুলতানার কাছে লিখিত আবেদন জানান সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক হাবিবুল্লাহ বৈদ্য, সদস্য রবিউল ইসলাম, ওবায়দুল কাদের, নিতাই ঢালী ও রাধাকান্ত সরকার, উপজেলা ভূমিহীন সমিতির উপদেষ্টা এমএম সাহেব আলী। লিখিত আবেদনে জানানো হয়েছে, সরকারি নীতিমালায় খাসজমিতে স্থায়ী, অস্থায়ী বন্দোবস্ত প্রদান, সরকারি জলমহালগুলিতে সল্পমেয়াদি ও দীর্ঘমেয়াদি ইজারা প্রদানের বিধান রয়েছে। কিন্তু বর্তমানে প্রকৃত ভূমিহীন ও মৎস্যজীবীরা বন্দোবস্ত-ইজারা নিয়েও কেউ সরেজমিনে দখল পাচ্ছেনা, অনেক ক্ষেত্রে সাময়িক দখল পেলেও ভূমিদস্যু ও জলদস্যুদের বেআইনি দখল প্রচেষ্টার ফলে তারা শান্তিপূর্ন দখলে থাকতে পারছে না। আবার ইজারা নবায়ন না করার ফলে ভূমিদস্যুরা সরকারি সম্পত্তি দখলে নিচ্ছে ও ভূমিহীনদের নামে হয়রানিমূলক মামলা দিয়ে তাদের নাজেহাল করছে। এ কারণে শোভনালী ইউনিয়নের কাটাখালী ও হাজীপুর মৌজার ভূমিহীন পল্লী ইতোমধ্যে রক্তাত্ব জনপদে পরিনত হয়েছে। অন্যদিকে, সরকার ঘোষিত ‘জাল যার, জলা তার’ নীতিমালা ২০০৯ অনুযায়ী জলমহালে একমাত্র মৎস্যজীবীদের অধিকার প্রতিষ্ঠার নিয়ম থাকলেও বিভিন্ন ভাবে তারা বঞ্চিত হচ্ছে। প্রভাবশালীরা তাদের উচ্ছেদ করতে জলমহালগুলো চিংড়িমহল দেখিয়ে ব্যক্তি নামে ইজারা নেয়ার প্রয়াশ করছে ও অমৎস্যজীবীদের নিয়ে সমিতি গঠন করে জলমহালগুলো দখলে নেয়ার পায়তারা করছে। উপোরক্ত অবস্থার প্রেক্ষিতে সরকারের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে উপজেলা নির্বাহি অফিসার, জলমহাল কমিটি ও খাসজমি বন্দোবস্ত কমিটির আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন উপজেলার ভূমিহীন ও মৎস্যজীবী অধিকার সমন্বয় কমিটির নেতৃবৃন্দ।

 বাহবুল হাসনাইন

LEAVE A REPLY