আলিপুর জোরপূর্বক জমি দখলের চেষ্টা: প্রতিপক্ষের দায়ের কোপে আলাউদ্দীন এখন মৃত্যু শয্যায়

0
727

মোমিনুর রহমান:

আলিপুরে দীর্ঘদিনের ভোগদখলীয় জমি জবর দখল নেওয়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের দায়ের কোপে খুলনা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে আলাউদ্দীন। এ ঘটনায় আহত হয়ে আরও তিন জন সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে বলে জানা গেছে। প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, সাতক্ষীরা সদর উপজেলার আলিপুর ইউনিয়নের বুলাআটি গ্রামের ইমাম হোসেন ছেলে আব্দুর রহমানের দখলীয় জমি নিয়ে একই গ্রামের মৃত আকবর দোকানদারের ছেলে এবাদুল্লাহ ও আরিবুল্লা আল-ফারুকের সাথে দীর্ঘ দিনের বিরোধ চলে আসছিল। গত ইং ১২/৯/১৭ তারিখে বিকাল ৪ টার দিকে  পরিকল্পিত ভাবে আব্দুর রহমানের জমি জোর পূর্বক দখল করে ঘর নির্মানের চেষ্টা করে। এ সময় আব্দুর রহমান ও তার পরিবার বাঁধা সৃষ্টি করলে বুলারআটি গ্রামের মৃত আকবর দোকানদারের ছেলে এবাদুল্লাহ(৩২) ভাই আরিবুল্লা আল-ফারুক (২২) একই গ্রামের আইজুলবারী মুহুরীর ছেলে সাইফুল্লাহ(৩৫) তকিম গাইনের ছেলে ইমাদুল(৩৩) কায়ছার মল্লিকের ছেলে জাহাঙ্গীর(৩৩) আলমগীর(৩০) রবিউলের ছেলে আদম(৩০) মুজিবর সরদারের ছেলে মোক্তাদার(৩৫) এজাহারের ছেলে শহিদুল ইসলাম(৫০) শহর আলী গাইনের ছেলে হাকিম(৫২) সহ আরও কয়েক জন সন্ত্রাসী দেশিও অস্ত্র-সস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে আব্দুর রহমান, মাতা রওশানার বেগম, রহমানের চাচাত ভাই আলাউদ্দীনকে ধারালো দা ও বাঁশের লাঠি দিয়ে আঘাত করলে মাথা ফাটা সহ শরীরে বিভিন্ন অংশে গুরুতর রক্তাত্ব জখম হয়। বর্তমানে আলাউদ্দীন খুলনা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এ সময় সন্ত্রাসীদের দায়ের কোপে মাতা রওশানার একটি আঙ্গুল সম্পূর্ণ কেটে মাটিতে পড়ে যায়। এ ব্যাপারে আব্দুর রহমান বাদী হয়ে ১০ জনকে আসামী করে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
নাজমুল হাসান