অপহরণের ছয় দিনেও উদ্ধার হয়নি কালিগঞ্জের স্কুল ছাত্রী দীপা দেবনাথ

0
218

স্টাফ রিপোর্টার:

অপহরণের ছয় দিনেও উদ্ধার হয়নি সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর প্রাণকৃষ্ণ স্মারক বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রের ছাত্রী দীপা দেবনাথ। মেয়েকে ফিরে পাওয়ার আশায় পুলিশ, জনপ্রতিনিধি ও বিশিষ্ট জনদের দুয়ারে ঘুরে বেড়াচ্ছেন স্কুল ছাত্রীর বাবা জয়পত্রকাটি গ্রামের বিশ্বনাথ দেবনাথ।

বিশ্বনাথ দেবনাথ জানান, তার মেয়ে দীপা সহপাঠি বন্দকাটি গ্রামের আব্দুস সামাদ মোড়লের মেয়ে ছাদিয়া মোস্তারা রানীর সঙ্গে একসাথে বন্দকাটি গ্রামের মাদ্রাসা শিক্ষক গোপাল মণ্ডলের কাছে পড়তে যায়। মুক্তিযোদ্ধা আরশাদ আমিনের ছেলে সম্প্রতি পুলিশে চাকুরি পাওয়া আরিফুল তাকে কু’ প্রস্তাব দিত। আরিফুলকে সহায়তা করতো সোনাতলা গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা  শুকচাঁদ গাজীর ছেলেও বিষ্ণুপুর প্রাণকৃষ্ণ স্মারক বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর  ছাত্র ইউসুফ আলী ও বন্দকাটি গ্রামের ছাদিয়া মোস্তারী। বৃহষ্পতিবার বিকেলে প্রাইভেট পড়তে যেয়ে দীপা আর বাড়ি ফেরেনি। দীপার সাইকেল ও বই ছাদিয়া মোস্তারীর বাড়িত আছে জানালে সেখান থেকে বৃহষ্পতিবার রাতেই তিনি তা নিয়ে আসেন। সম্ভাব্য সকল জায়গায় তাকে না পেয়ে শনিবার থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন তিনি। এরপর তার মেয়েকে ছাদিয়া মোস্তারীর বাড়ির সামনে থেকে ইউসুফের সহায়তায় অরিফুলও তার সহযোগীরা অপহরণ করে নিয়ে গেছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানতে পেরেছেন।

বিষয়টি পুলিশকে জানালেও গত মঙ্গলবার রাত ৯টা পর্যন্ত তার কোন সন্ধান দিতে পারেনি পুলিশ। অথচ ইউসুফের বাবা শুকচাঁদ নিজে ও তার ছেলেকে বাঁচানোর জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ানম্যান শেখ রিয়াজউদ্দিনসহ বিভিন্ন জায়গায় দেন দরবার করছেন। তার মেয়েকে না পাওয়া গেলে বুধবার থানায় অপহরণ মামলা করবেন বলে জানা তিনি। মঙ্গলবার সকালে একটি মোবাইল ফোন থেকে দীপা তার ঠাকুরদাদাকে জানিয়েছে যে, সে একটি জায়গায় আছে। তবে সে ভাল নেই। তিন চারদিন পর মোবাইল করলে তাকে যেন সেখান থেকে নিয়ে আসা হয়। এ ব্যাপারে শুকচাঁদ গাজী তার ছেলে ইউসুফের বিরুদ্ধে দীপা দেবনাথকে অপহরণের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেন। এ ছাড়া ছাদিয়া মোস্তারী জানান, বৃহষ্পতিবার একই গ্রামের একটি বাড়িতে দাওয়াত খেতে যাওয়ায় তার সঙ্গে দীপার দেখা হয়নি। দীপা তাদের বাড়িতে টিভি দেখে সন্ধার আগেই কোথা ও চলে গেছে সে জানে না।

তবে খুলনায় পুলিশ ট্রেনিয়ে থাকা আরিফুলের সঙ্গে তার মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
এ ব্যাপারে কালিগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক সুধাংশু সরকার জানান, দীপাকে উদ্ধারের চেষ্টা চরছে। প্রয়োজনে সন্ধিগ্ধদের বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হবে।

LEAVE A REPLY